«

»

Sadik

ফেসবুকের টাইমলাইন ব্যবহার করে কিভাবে বিব্রত করবেন বন্ধুকে অথবা নিজেকে রক্ষা করবেন!

ইয়াহু—- নতুন ফেসবুক চলে এসেছে! আর সাথে সাথে অন্যান্য সকল ফেসবুক আপডেটের মত – আপনার বন্ধুর সাথে মজা করবার নতুন এক বিশ্ব আপনার সামনে খুলে গিয়েছে (অথবা নিজেই এই ফাঁদে ধরা পড়বার সময় হয়েছে)। কিভাবে?

প্রথমে আপনাকে ফেসবুক টাইমলাইন সুবিধাটির যোগ দিতে হবে। খুব সহজ এই পেজে ভিজিট করে গ্রিন বাটনটি চাপ দিন তাহলেই হবে।

আপনার প্রোফাইলটিকে আপগ্রেড এবং পাবলিশ করুন। টাইমলাইনের মাধ্যমে আপনি দু’ভাবে আপনার বন্ধুকে জালাতন করতে পারবেন। দুটোই সময় নির্ভর ফেসবুকের ঐতিহ্য: আপনার বন্ধুর প্রোফাইলে যন্ত্রণাদায়ক কোন কিছু পোস্ট করা এবং বন্ধুকে লজ্জাজনক কোন কিছুতে ট্যাগ করা। কিন্তু, টাইমলাইন, আপনার এই ক্ষমতাকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।

মনে রাখবেন ফেসবুকে আপনার বন্ধুকে জ্বালাতন করা আসলে “আনন্দদায়ক নয়”, অথবা এর মাধ্যমে রসও সৃষ্টি হয় না। এটা নিছক একটা উপায় যার মাধ্যমে আপনি আপনার বন্ধুদেরকে দেখিয়েছেন যে আপনি তাদেরকে মনে করছেন।

১. আপনার বন্ধুদের সাথে বিব্রত করুন তাদের টাইমলাইনে পোস্ট করবার মাধ্যমে:

আপনার বন্ধুদেরকে বিরক্ত করবার মোক্ষম পন্থা হচ্ছে তাদের ফেসবুক প্রোফাইলে পোস্ট করা। কিন্তু নতুন ডিজাইনের ফেসবুকের সাহায্যে আপনি টাইমলাইনের সাহায্যে যে কোন বছরে পোস্ট করতে পারবেন। ব্যাপারটা খুব সহজ, শুধু ক্লিক করুন ঘড়ির আইকনটিকে এবং সেখান থেকে নির্ধারণ করুন যে কোন বছরের যে কোন একটি দিন যেদিনে আপনি আপনার পোস্টটি পাবলিশ করতে চান।

এর মাধ্যমে শুধু নতুন হাস্যরসের সৃষ্টি হবে না, আপনার বন্ধু প্রবরটির জন্য এটি ভয়াবহ বিরক্তির সৃষ্টি করতে পারে যদি সে বুঝতে না পারে ঠিক কোন যায়গায় আপনি পোস্টটি করেছেন। আপনি নিজেকে “ফেসবুক ওয়াকার” হিসেবে দাবী করতে পারেন, যে কিনা কসমিক শক্তির সাহায্যে সময়কে পরিভ্রমণ করবার ক্ষমতা রাখে। দুঃখের বিষয় আপনি আপনার বন্ধুর জন্মের আগে কোন কিছু পোস্ট করতে পারবেন না।

কিভাবে এর হাত থেকে রক্ষা পাবেন:
আপনার বন্ধু যদি এরকম কিছু আপনার ফেসবুকে পোস্ট করে থাকে তাহলে খুঁজে বের করে তা ডিলিট করবার মাধ্যমে এ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তবে এ সকল বন্ধুদেরকে যদি সমূলে উৎপাটন করতে চান তাহলে এই পদ্ধতিটি প্রয়োগ করুন: প্রাইভেসি সেটিংসের মধ্যে থেকে “হাউ ইউ কানেক্ট” মাধ্যমে বন্ধু প্রবরটির(!) আপনার টাইমলাইনে কোন কিছু পোস্ট করার ক্ষমতা বন্ধ করে দিতে পারেন (এখানে একটা ভয়াবহ হাসি যোগ করতে পারেন)।

২. আপনার বন্ধুকে বিব্রত করুন তাদের লাইফ ইভেন্টে ট্যাগ করবার মাধ্যমে:

টাইমলাইনে এটাই সবচেয়ে মজার একটি বৈশিষ্ট্য, এবং ‘প্লেসেস’ এর আবির্ভাবের পর ফেসবুক এর মাধ্যমে সম্ভবত শ্রেষ্ঠ সুযোগ প্রদান করল যার মাধ্যমে আপনি আপনার বন্ধুদের সাথে মজা করতে পারবেন।

এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, এই মজাটি করবার জন্য আপনাকে অন্য কারো প্রোফাইল পেজে পর্যন্ত যেতে হবে না! শুধু আপনার প্রোফাইল পেজ থেকে নতুন একটি “লাইফ ইভেন্ট” তৈরি করুন এবং এরপর পুরো পাগল হয়ে যান।

ছবি, তারিখ, স্থান ইত্যাদি যা ইচ্ছা যোগ করুন, টাইমলাইন হচ্ছে আপনার অয়েস্টার! এখানে একটা কথা জানিয়ে রাখি, আপনার টাইমলাইনে অদ্ভুত কোন ঘটনাতে আপনার বন্ধুকে ট্যাগ করবার মাধ্যমে আসলে আপনি কিন্তু নিজেই নিজের শয়তানির শিকার হচ্ছেন।

কিভাবে নিজেকে এর হাত থেকে রক্ষা করবেন:
খুব সহজেই এর হাত থেকে আপনি রক্ষা পেতে পারেন। আপনার প্রাইভেসি সেটিং থেকে “হাউ ট্যাগ ওয়ার্কস” এডিট করে “টাইমলাইন রিভিউ” অন করুন। এর মাধ্যমে আপনি আপনার বন্ধু কর্তৃক করা যে কোন ট্যাগকে অনুমোদন অথবা প্রত্যাখ্যান করতে পারবেন।

সংগৃহীত।

 

 


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

টিকা দিন কম্পিউটার, পেনড্রাইভ ও মেমোরিকে এবং নিরাপদ থাকুন।
আপনার ফেসবুক ফ্যান পেজ থাকলে এখান থেকে খুব সহজেই তার ফ্যান বাড়িয়ে নিতে পারেন অথবা তার বিনিময়ে টাকা ত...
উইন্ডোজের কিছু সমস্যা, সমাধান এবং পরামর্শঃ আপনার ও প্রয়োজন হতে পারে
ছবির মধ্যে লেখা কপি করুন অনায়াসে
আনলিমিটেড ফেসবুক ব্যবহার করুন ইন্টারনেট ছাড়াই !!!
Risingtraffic এর মাধ্যমে আয় করুন ১০০% নিশ্চিন্তে। [না দেখলে ১০০০% মিস]
ওয়েব ডিভেলপমেন্ট বেসিক টিউটোরিয়াল পার্ট -৪

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

Sadik

ছোটবেলা থেকেই কম্পিউটার এর প্রতি অনেক আগ্রহ ছিল। যার জন্য ইন্টারমিডিয়েট এর শুরু থেকে টিউশনি করে টাকা জমিয়ে ২০১১ সালে এর এপ্রিল এ কম্পিউটার কিনি। বর্তমানে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে পড়াশুনা করছি। সারাদিন পিসির সামনে বসে থাকি। প্রতিদিনি শিখছি। ইচ্ছা আছে ফ্রিলানসিং এ একটা ভালো অবস্থানে যাবার। বই পড়তে আর নতুন নতুন যায়গায় ঘুরতে ভালবাসি। ফটোগ্রাফিরও শখ আছে।

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/uncategorized/shiblee/18618

3 comments

  1. Mehedi

    আপনার জন্য শুভ কামনা থাকল। আশা করি সফল হবেন। পোষ্ট টি সুন্দর হয়েছে। টেক্টুইটস পরিবারের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

    1. Sadik
      Sadik

      আপনাকেও ধন্যবাদ।

  2. shuvojit
    shuvojit

    ধন্যবাদ ভাই ..দারুন হয়েছে

মন্তব্য করুন