«

»

পৃথিবীর সবচেয়ে বিষধর ৫ টি সাপ

০১. Fierce Snake or Inland Taipan

স্থলভাগে পাওয়া সাপের মধ্যে এই সাপ সবচেয়ে বিষধর। এই সাপের প্রতিটি কামড়ে প্রায় ১১০ মিলিগ্রাম পরিমাণ বিষ থাকে যা ১০০ জন মানুষ বা ২৫০,০০০টি ইদুরকে মেরে ফেলার জন্য যথেষ্ট। এটির একটি কামড় Mojave Rattlesnake এর দশটি কামড়ের সমান অন্যদিকে প্রায় ৫০টা কোবরার কামড়ের সমান।তবে এটি সাধারণত মানুষকে কামড়ায় না।এই সাপের কামড়ের ফলে মাত্র ৪৫ মিনিটের মধ্যে একজন পূর্ণবষস্ক মানুষের মৃত্যু হতে পারে।

০২.Eastern Brown Snake

এটি পৃথিবীর দ্বিতীয় বিষধর সাপ যার ১/১৪০০০ আউন্স বিষ একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের মৃত্যুর জন্য যথেষ্ট। বিভিন্ন প্রজাতির মধ্যে পূর্বাঞ্চলীয় বাদামী সাপই বেশী বিষধর। এটি অষ্ট্রেলিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ অঞ্চলে থাকতেই বেশী পছন্দ করে।এটি দ্রুত চলাফেরা করতে পারে। এবং উপযুক্ত পরিবেশে হরহামেশাই আক্রমন করে বসতে পারে।এই সাপের বিষ স্নায়ু ও রক্তে একসাথে আক্রমন করে যার ফল অধিকাংশ মানুষের মৃত্যু ঘটে।তবে আমাদের সৌভাগ্য এই যে পারত পক্ষে এই সাপ কামড়ায় না আর প্রতি দুইটি কামড়ের মধ্যে একটিতে বিষ থাকে। এই সাপ চলমান মানুষ/বস্তুকে আক্রমন করে তাই যদি কখনো এই সাপের কবলে পড়েন তাহলে নড়াচড়া না করে স্থির হয়ে থাকবেন।

০৩. Blue Krait

এই সাপকে Malayan বা Blue Krait বলা হয়ে থাকে।এটি দক্ষিণ পূর্বএশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়াতে বেশী পাওয়া যায়। সুচিকিতসা দিলেও ৫০% কামড়ের ফলে মৃত্যু ঘটে।এই সাপ অন্য সাপদের আক্রমন করে শিকার করে এমনকি নিজেদের প্রজাতির সাপদেরও আক্রমন করে।এরা রাতে চলাচল করতে ও শিকার করতে বেশী পছন্দ করে।তথাপি এর ভীরু প্রকৃতির এবং লড়াইয়ের অধিকাংশ সময় এরা পলিয়ে বাচার চেষ্টা করে।এই সাপের বিষ স্নায়ুতে আক্রান্ত হয় এবং একটি কামড় কোবরার ১৬টি কামড়ের সমান বিষাক্ত।এটির বিষ খুব দ্রুত পেশীসমূহকে দূর্বল করে দেয় এবং নার্ভের গতি কমিয়ে দেয়।নিশাচর হওয়ার কারণে এরা খুবই কম মানুষকে কামড়ায়।প্রতিশোধক আবিষ্কারের পূর্বে ৮৫% মানুষ এই সাপের কামড়ে মারা যেত।.

০৪. Taipan

এই সাপটিও অষ্ট্রেলিয়ায় বেশী পাওয়া যায়। ১২,০০০ শুকরকে মেরেফেলার জন্য একটি  সাপই যথেষ্ট।কামড়ের ফলে রক্তে জমাট বেধে শিরা ও ধমনীতে রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।তবে এটি স্নায়ুতেই আক্রমন করতে পার।প্রতিশোধক আবিষ্কারের পূর্বে কামড়ের এক ঘন্টার মধ্যে আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু হত। আক্রান্ত ব্যক্তিকে পুরাপরি সুস্থ করতে অতিরিক্ত পরিচর্যা একান্ত আবশ্যক। তবুও আফ্রিকার পরিবেশের সাথে ভারসাম্য রাখার জন্য বিপজ্জনক হওয়া সত্ত্বেও এই সাপকে পছন্দ করা হয়।

০৫. Black Mamba

ভীতিকর কালো মামবা (Mamba) সাধারণত আফ্রিকার বিভিন্ন প্রদেশে পাওয়া যায়।এরা বিনা কারণেই আক্রমন করে এবং মৃত্যুই একমাত্র লক্ষ।এটি পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুততম সাপ যার গতি ঘন্টায় প্রায় ২০ কিঃমিঃ পর্যন্ত হতে পারে।এটি একই সারিতে পরপর ১২ বার কামড় দিতে পারে। ১০-২৫ জন পূর্ণ বয়স্ক মানুষের শরীরের যে কোন স্থানে একটি কামড়ই যথেষ্ট যা মৃত্যু ঘটায়।এই সাপের বিষ দ্রত ক্রিয়া করে এবং প্রতিটি কামড়ে ১০০-১২০mg বিষ থাকে তবে এটি ৪০০mg পর্যন্ত বিষ দিতে পারে মাত্র একটি কামড়ে।যদি এই বিষ রক্ত নালিতে প্র্রবেশ করে তবে .২৫mg/kg বিষই যথেষ্ট একজনকে মেরে ফেলতে। কামড়ের ফলে আক্রান্ত ব্যক্তির বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেয় যেমন- শরীর জ্বালা-পোড়া করা, একটি জিনিসকে দুটি দেখা, জ্বর, নাক-মুখ দিয়ে লালা ঝরা ইত্যাদি। প্রয়োজনীয় চিকিতসা না পেলে ১০০% ভাগই মৃত্যু বরন করে।যা অন্য কোন সাপের ক্ষেত্রে ঘটে না। পরিবেশ ওস্থানভেদে কামড়ের ১৫ মিনিট থেকে ৩ঘন্টার মধ্যে মৃত্যু ঘটে।

সূত্র:ইন্টারনেট

হাতে সময় থাকলে ঘুরে আসতে পারেন আমার ব্লগ থেকে  rejapc.blogspot.com/


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

মস্তিষ্কের কতটুকু আমাদের কাজে লাগে? সারা জীবনে মাত্র ১০% ?
হারিয়ে যান 4G ইনটারনেট এর জগতে।
খুব সহজে এস এস সি ২০১৪ ( SSC 2014 ) এর রেজাল্ট জানুন কোন রকম ঝামেলা ছাড়া ।
Payoneer-MasterCard এর জন্য কিভাবে আবেদন (apply ) করবেন ? এবং কার্ড হাতে পেয়ে কিভাবে অ্যাক্টিভ করবেন...
অবশেষে প্রকাশ হল অ্যালকাটেল ওয়ানটাচ ফ্ল্যাশ ২ এর দাম
2.5D glass ও 3D spin effect সমৃদ্ধ Alcatel Onetouch X1
১০০% বিশ্বস্ত এবং গ্যারান্টেড একটি রেভনিউ শেয়ারীং সাইট মাই পেইং এড্ যেখান থেকে আপনি মাসে ২০০ থেকে ৫০...

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

Rejaul islam Reja

rejapc.blogspot.com/

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/uncategorized/rejaul-islam-reja/28271

2 comments

  1. nishachar

    ইংরেজী থেকে বাংলা কপি-পেষ্ট করলে সুত্র ইন্টারনেট দিলেই হয় কিন্তু অন্য ব্লগের লেখা কপি-পেষ্ট করলে সুত্র হিসেবে ওই লেখার লিংক দেয়া উচিত।লেখকের অনুমতি বাদে জনসার্থ ব্যাতীত যেকোন টেকস্পেট এর লেখা কপি করা নিষিদ্ধ।

  2. Rejaul islam Reja

    বিষয়টি সুন্দর ভাবে বুঝিয়ে বলার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ

মন্তব্য করুন