«

»

Nazrul

“নামাজ অশ্লীল কাজ থেকে বিরত রাখে”

মহান আল্লাহর সঙ্গে প্রিয় বান্দার সম্পর্ক তৈরি হয় নামাজের মাধ্যমে। নামাজের প্রতি যে যতবেশি মনোযোগী আল্লাহর রহমত তার ততবেশি সহযোগী। মানুষ যখন নিয়মিত গুরুত্বের সঙ্গে নামাজ আদায় করে তখন তার অন্তরে ঈমানের আলো বিকশিত হয়, আল্লাহর প্রতি ভালোবাসা সৃষ্টি হয়। একজন মুসলমানের জীবনে যখন নামাজ প্রতিষ্ঠিত হয় তখন ইসলামের অন্যান্য বিধি-বিধান মানা তার জন্য সহজ হয়ে যায়। সে হয়ে ওঠে আল্লাহর প্রিয়, মানুষের প্রিয় ও সবার প্রিয়। চাইলেও সে অনেক মন্দ কাজ করতে পারে না। অন্যায় অপরাধ করা থেকে আল্লাহর রহমত তাকে অদৃশ্যভাবে বাধা দেয়। নামাজ মানুষকে অশ্লীল ও মন্দ কাজ থেকে বিরত রাখে। ঈমানদার যখন নামাজ পড়েন তখন আল্লাহ পাক তাকে মায়ার চাদরে ঢেকে নেন। তার উপর দয়ার বৃষ্টি বর্ষণ করেন। তার প্রতি সন্তুষ্ট হন। জীবন চলার পথে তার যা যা প্রয়োজন সবকিছু ব্যবস্থা করে দেন। পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ তায়ালা নামাজের গুরুত্ব সম্পর্কে ঘোষণা করেন ‘(হে মুহম্মদ সা.) আপনি আপনার প্রতি প্রত্যাদিষ্ট কিতাব পাঠ করুন এবং নামাজ কায়েম করুন। নিশ্চয় নামাজ অশ্লীল ও মন্দ কাজ থেকে বিরত রাখে। আল্লাহর স্মরণ সর্বশ্রেষ্ঠ। আল্লাহ জানেন তোমরা যা কর।’ সূরা আনকাবুত, আয়াত-৪৫পবিত্র কোরআনের বিখ্যাত ব্যাখ্যা গ্রন্থ তাফসিরে মা’আরিফুল কোরআনে বিশ্বনন্দিত মুফাচ্ছির আল্লামা মুফতি শফী (রহ.) এই আয়াতের ব্যাখ্যায় লিখেছেন, নামাজের মধ্যে বিশেষ একটি প্রতিক্রিয়া নিহিত আছে। যে ব্যক্তি নামাজ কায়েম করে সে গোনাহ থেকে মুক্ত থাকে। নামাজ কায়েম করার অর্থ এই যে, রাসূল (সা.) যেভাবে নামাজ পড়েছেন এবং যেভাবে শিক্ষা দিয়েছেন সেভাবে নামাজ আদায় করা। অর্থাৎ নামাজের বাহ্যিক রীতিনীতি ও অভ্যন্তরীণ রীতিনীতি গুরুত্বের সঙ্গে পালন করতে হবে। বাহ্যিক রীতিনীতি যেমন শরীর, পরিধেয় বস্ত্র, নামাজের স্থান প্রভৃতি পবিত্র হতে হবে। নিয়মিত জামাতের সঙ্গে নামাজ আদায় করতে হবে। নামাজের মধ্যে রাসূল (সা.)-এর সুন্নতসমূহ অনুসরণ করতে হবে। অভ্যন্তরীণ রীতিনীতি হলো, মহান আল্লাহর সামনে পূর্ণ মনোযোগ ও বিনয়ের সঙ্গে দাঁড়াতে হবে। মনে মনে ভাবতে হবে, আমি আল্লাহকে দেখছি। আল্লাহ আমাকে দেখছেন। আল্লাহর সঙ্গে আমার ভাব বিনিময় হচ্ছে। তাঁর কাছে সাহায্য চাচ্ছি। এভাবে একাগ্রচিত্তে নামাজ আদায় করলে সে ব্যক্তি আল্লাহর পক্ষ থেকে গোনাহ থেকে মুক্ত থাকার তওফিক প্রাপ্ত হয়। নামাজ পড়া সত্ত্বেও যে ব্যক্তি গোনাহ পরিত্যাগ করতে পারল না ভাবতে হবে তার নামাজে ত্রুটি আছে। বিখ্যাত সাহাবী হজরত ইমরান ইবনে হুসাইন (রা.) থেকে বর্ণিত, এক প্রশ্নের জবাবে রাসূলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তিকে তার নামাজ অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে না তার নামাজ কিছুই নয়। মহান আল্লাহর বাণী ও প্রিয় নবীজীর হাদিস থেকে আমরা নামাজের গুরুত্ব সম্পর্কে ধারণা লাভ করলাম। আল্লাহপাক আমাদেরকে আমল করার তওফিক দান করুন। আমীন।


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

এবার আসবে, গান শুনার আসল মজা !!!!
১০.টি আকর্ষনীয় ওয়ার্ল্ড গিনেজ রেকর্ড (না দেখলে মিস্ করবেন কিন্তু)
চলছে সাইভার যুদ্ধ – ইন্ডিয়া বনান বাংলাদেশ
মালয়েশিয়ার চোখধাঁধানো শপিং মল! Eye catching shopping mall in Malaysia
প্রোগ্রামিং শেখার জন্য অসাধারন কিছু সাইট ।
জনপ্রিয় "মোস্তফা" গেইমটি এখন এন্ড্রোয়েড মোবাইলে খেলুন
Make Money 240$ Per Month From Online With Payment Proof.

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

Nazrul

Nazrul

Md. Nazrul Islam Bsc. DUET (Electrical) (Diploma Gutter BAFA) (Mashinist German TTC) Businessman

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/uncategorized/nazrul/14193

মন্তব্য করুন