«

»

mustakinsarker

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কী এবং কেন শিখবেন

SEO পূর্ণ রুপ হল সার্চইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।  SEO হচ্ছে এমন এক ধরনের পদ্ধতি যার মাধ্যমে একটি ওয়েব সাইটকে সার্চ ইঞ্জিন এর কাছে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলে। যাতে একটি নিদিষ্ট বিষয়ের সার্চ রেজাল্টে ওয়েব সাইটটি অন্য সাইটকে পেছনে ফেলে সবার আগে পদরশিত হতে পারে। এ ধরনের সার্চ রেজাল্ট কে organic বা natural সার্চ সার্চ রেজাল্ট বলা হয়। সার্চ রেজাল্ট এর প্রথম পাতায় দশটি ওয়েবসাইট এর মধ্যে নিজের ওয়েবসাইট কে নিয়ে আসার লক্ষ্য সবার  থাকে। কারন ব্যবহারকারীরা সাধারনত শীর্ষ দশের মধ্যে তার কাঙ্ক্ষিত ওয়েবসাইট না পেলে দ্বিতীয় পাতায় যায় না। তারমানে শীর্ষ দশে থাকা মানে ওয়েবসাইট এ বেশি পরিমাণ ভিজিটর পাওয়া …। আর বেশি ভিজিটর মানে বেশি আয়। এজন্য সবাই মরিয়া হয়ে নিজের ওয়েবসাইট কে সার্চইঞ্জিনের জন্য উপযুক্ত করেন । আর এই কাজটাই করা হয় SEO এর মাধ্যমে। আশা করি SEO কি সবাই বুঝতে পেরেছেন।

আপনি কেন সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শিখবেন

আমরা আমাদের বিভিন্ন প্রয়োজনে বা সেবাদানের লক্ষ্যে ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকি। কিন্তু এই ওয়েবসাইট তৈরির মূল উদ্দেশ্য থাকে কাঙ্ক্ষিত ভিজিটর। কারণ, আপনার সাইটে যদি ভিজিটর না আসে, তাহলে ওই সাইট থেকে আপনি কোনো প্রকার সুবিধা ভোগ করতে পারবেন না। আর সাইটে ভিজিটর বেশি পেতে হলে এটিকে সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্ট পেজের ওপরের দিকে নিয়ে আসতে হবে।

কেননা, অধিকাংশ ভিজিটর আসে সার্চ ইঞ্জিনে বিভিন্ন কি-ওয়ার্ডের মাধ্যমে সার্চ করে। আর এসব সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাঙ্কিংয়ে আসতে হলে আপনার সাইটটিকে সার্চ ইঞ্জিনের নিয়মনীতি অনুসরণ করে যথাযথভাবে অপটিমাইজড করতে হবে। তাহলেই আপনি সার্চ ইঞ্জিনগুলো থেকে ভালো মানের ভিজিটর পেতে পারেন এবং আপনি লাভবান হতে পারবেন। ভিজিটর যত বাড়বে, আপনার আয়ও তত বৃদ্ধি পাবে।

বাইরের বিভিন্ন দেশে যেকোনো ছোট-বড় ব্যবসা বা ব্যক্তিগত কাজের জন্য ওয়েবসাইটকে প্রাধান্য দেওয়া হয়। তাদের সব কাজই অনলাইনের মাধ্যমে হয়ে থাকে। আর এ কারণেই তারা যার যার নিজস্ব সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাঙ্কিংয়ে আনতে চায়। তখনই তাদের প্রয়োজন পড়ে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের। কারণ, এসইও ছাড়া কোনো সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনে ভালো অবস্থানে নিয়ে আসা সম্ভব নয়।

আমাদের দেশেও এখন ছোট/বড় ব্যবসার জন্য বা ব্যক্তিগত প্রয়োজনে অনেক ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে। আর এসব সাইটের গ্রহণযোগ্যতা বাড়াতে, অর্থাৎ সাধারণ জনগণের কাছে কাঙ্ক্ষিত কি-ওয়ার্ডের ভিত্তিতে এসব সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের র‍্যাঙ্কিংয়ে আনার জন্য এসইও দরকার।

আর এভাবেই ছোট/বড় সব সাইটের পরিচিতি ও ভিজিটর বৃদ্ধির জন্য সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনকে বাংলাদেশেও অনেক গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে এবং যতই দিন যাচ্ছে, এর চাহিদা ততই বাড়ছে। কারণ, এসইও একটি চলমান ও ধারাবাহিক প্রক্রিয়া।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শেখার আরও তিনটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ তুলে ধরলামঃ-

১। আপনার যদি ব্লগ বা ওয়েবসাইট থাকে তাহলে SEO করার মাধ্যমে অনেক ভিজিটর পাবেন আর বেশি ভিজিটর মানে বেশি আয়।

২। অনেক বড় ফ্রীলেন্সার সাইট যেমন oDesk,freelancer,elance ইত্যাদি সাইট এ SEO এর অনেক কাজ পাওয়া যায়।

৩। আপনি জানেন seo এর কাজ করে হাজার হাজার ডলার আয় করছে অনেকেই। আমাদের দেশেও অনেক ফ্রীল্যান্সার seo এর কাজ করছে। পৃথিবী জুড়ে seo কর্মীর অনেক চাহিদা রয়েছে।

কিভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শিখবেন

বর্তমানে আমাদের দেশে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শেখার অনেক উপায় রয়েছে। আপনি ইউটিউবে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে বা বিভিন্ন ব্লগ সাইটে লিখিত টিউটোরিয়াল দেখে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শিখতে পারেন। তবে আপনি যদি একেবারেই নতুন হন, তবে এ সকল উপায় আপনার কোন কাজে আসবে না। এজন্য আপনি একটি ভাল মানের সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ট্রেনিং সেন্টারের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। যেখানে আপনি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন খুব ভালভাবে শিখতে পারেন। আমার জানা মতে amwebcreation  বাংলাদেশের অন্যতম সেরা আইটি ট্রেনিং সেন্টার। যেখানে আপনি ভাল মানের সেবা পেতে পারেন।

তাছাড়া আমাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন।


মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

mustakinsarker

mustakinsarker

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/uncategorized/mustakinsarker/71339

মন্তব্য করুন