«

»

ফেসবুক টাইম কিলার এবং তার থেকে দূরে থাকার উপায়

সবাই কেমন আছেন? আশাকরি সবাই ভাল আছেন। অনেক দিন লিখি নাহ। আসলে একটু ব্যস্ততা আর অলসতায় লিখতে পারছিলাম নাহ। আবারো লিখার প্রত্যয় নিয়ে ফিরে এলাম। যাই আসল কথায় আসি। ফেসবুক কি তা তো কারো অজানা নেই। তারপরও বলি এটা সামাজিক যোগাযোগ এর সাইট। এখানে আপনি আপনার মনের অনুভূতি স্ট্যাটাস এর মাধ্যমে শেয়ার করতে পারবেন, আপনার ছবি, ভিডিও, গান সব শেয়ার করতে পারবেন আপনার বন্ধুদের সাথে। সাথে আপনার ফ্রেন্ড যা শেয়ার করবে আপনি তা দেখতে পারবেন। তাতে মন্তব্য করতে পারবেন। লাইক বাটনের মাধ্যমে তা পছন্দ হয়েছে তা জানাতে পারবেন। আবার তা অন্য বন্ধুকে ট্যাগ করার মাধ্যমে জানাতে পারবেন। এইরকম অনেক অনেক সুবিধা পাবেন এই সামাজিক যোগাযোগের সাইটে। দিন যত যাচ্ছে ফেসবুকের ইউজার তত বাড়ছে এবং তা বাড়বে। এখন মানুষ যোগাযোগের অন্যতম একটা মাধ্যম হিসাবে ফেসবুককে ব্যবহার করে। এখন মানুষ কারো সাথে পরিচিত হলে তার ফেসবুক আইডিও যোগ করে বলে “দোস্ত তোর ফেসবুক আইডিটা বল আর তুই আমাকে এড করে নিস” ফেসবুক নিয়ে বর্তমানে কৌতুকও হচ্ছে একটি কৌতুক দেখি আসি –

স্যার পল্টুকে বললেন.
স্যার : তুমি বড় হয়ে কি করবে ?
পল্টু : ফেসবুক ইউজ
স্যার : আমি বুঝাতে চাচ্ছি বড় হয়ে তুমি কি হবে ?
পল্টু: ফেসবুক ইউজার
স্যার : আরে আমি বলতে চাচ্ছি তুমি বড় হয়ে কি পেতে চাও ?
পল্টু: পোষ্টে লাইক
স্যার : গাধা,তুমি বড় হয়ে মা বাবার জন্য কি করবে?
পল্টু: পেজ খুলব
স্যার : গর্দভ,তোমার বাবা মা তোমার কাছে কি চায় ?
পল্টু: আমার আকাউন্টের পাসওয়ার্ড
স্যার : ইয়া খোদা… তোমার জীবনের লক্ষ্য কি ?
পল্টু : আপনার মেয়ের আকাউন্ট হ্যাক করা।
স্যার অজ্ঞান. :p :p

যাক মূল কথায় ফিরে আসি। ফেসবুক আমাদেরকে  এত এত সুবিধা দিচ্ছে যে আমাদের আরেকটা ভার্চূয়াল লাইফ তৈরি হয়ে যাচ্ছে। ফেসবুকে এসে নোটিফিকেশন, ফেন্ড রিকোয়েস্ট, ইনবক্স না চেক করলে যেন অস্বস্থি লাগে। আর চ্যাটিং এবং ভিডিও কল এর যোগাযোগকে করেছে আরও সহজ। এটা চক্রাকারে চলতে থাকে–

Facebook Time Killer

নোটিফিকেশন চেক —>  লাইক বা মন্তব্য  —>   মেসেজের জবাব — > নুতন পোস্ট দেয়া —> বন্ধুদের সাথে চ্যাটিং —>  এভাবেই চলতেই থাকে। কেউ যদি বলে তার সময় কাটছে নাহ… তাকে বলুন ফেসবুকে জয়েন করতে তার সময় কিভাবে চলে যাবে সে টেরও পাবে নাহ। সাম্পতিক এক জরিপ মোতাবেক একজন একটিভ ইউজার প্রতিদিন ২- ৪ ঘন্টা ব্যায় করে ফেসবুকের পিছনে। ওয়েবে গুগল এর পরেই স্থান ফেসবুক দখল করে নিয়েছে। ফেসবুক এখন অন্যতম একটি টাইমকিলিং হিসাবে পরিচিত।  বর্তমানে ফেসবুকের লগ আউট বাটনটাতে ক্লিক করা যে কত কষ্টের তা ফেসবুক প্রেমীরা ভাল বলতে পারবে। ফেসবুকে অনেকে আসক্ত হয়ে পড়ছেন। যাদের ফেসবুকে লগিন নাহ করলে মানসিক অবস্বাদ, অশান্তি, বিষন্নতা ইত্যাদি দেখা দিচ্ছে। দেখা যাচ্ছে অনেকে অফিসে বসে কাজ করা বাদ দিয়ে ফেসবুকে লগিন করছে। সবাই শুধু নতুন নুতন বন্ধু  যুক্ত করতে ব্যস্ত। বন্ধুদের পোষ্ট পড়া, লাইক, চ্যাটিং ইত্যাদিতে সময় ব্যয় করছেন। অনেককে দেখা যায় প্রতিদিন ৮ ঘন্টার উপর ফেসবুকে ব্যয় করছে। যা আমাদের জন্য খুবই ক্ষতিকর। প্রয়োজনের চেয়ে অতিরিক্ত কোন কিছুই ভাল নয়।

এই অতিরিক্ত আমাদের জন্য  ক্ষতিকর হতে পারে আসুন দেখে নেই –

  • আপনার অনেক মূল্যবান সময় নষ্ট
  • আপনার মানসিক অশান্তি, অবস্বাদ, বিষন্নতা
  • আপনার কাজের ব্যঘাত
  • মেধার অপব্যবহার
  • সৃজনশীলতা
  • কাজ করার অনীহা
  • আত্নহত্যা করার ইচ্ছা
  • মনোযোগে ব্যঘাত
  • অল্পতে রেগে যাওয়া
  • খিটখিটে মেজাজ
  • ক্ষুধাহীনতা
  • বাস্তবজীবনে ভার্চুয়াল লাইফের প্রভাব

Facebook Time Killer

এছাড়াও আরো অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। এই ধরনের সমস্যা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে।

আসুন দেখে নেই এ থেকে কিভাবে দূরে থাকা যায়-

  • ফেসবুক ডিএকটিভ করে দিন এবং বিশ্রাম নিন। সম্ভব নাহ হলে প্রয়োজন ছাড়া ফেসবুকে লগিন করবেন নাহ।
  • ফেসবুক এ অযথা বসে থাকবেন নাহ।
  • প্রয়োজনীয় কথা ব্যতিত অন্যকোন কথা চ্যাটিং এ বলবেন নাহ।
  • পরিচিত ব্যতিত অপরিচিত কাউকে ফেন্ডলিস্ট এ যোগ করবেন নাহ।
  • একান্ত প্রয়োজনীয় ব্যক্তিদের লিষ্ট তৈরি করে শুধু তাদের সাবস্ক্রাইব অন রেখে অপ্রয়োজনীয়দের সাবস্কাইব বন্ধ করে দিন।
  • ফেসবুক চ্যাট অফলাইন রাখুন।সম্ভব নাহ হলে লিস্ট তৈরি করে প্রয়োজনীয় ব্যক্তিদের ঐ লিষ্টে রাখুন।
  • কাজ করার সময় ফেসবুক বন্ধ রাখুন।
  • মাঝে মাঝে কোথাও বেড়াতে যান । কাছের মানুষদের সময় দিন।
  • অফিসে ফেসবুকে লগিন করবেনা নাহ। যদি একান্ত প্রয়োজন নাহ থাকে।
  • অপ্রয়োজনীয় গ্রুপ, পেইজ থেকে দূরে থাকুন।
  • প্রোফাইল লিমিটেড করে দিন।
  • ফেসবুকের কাজ শেষ হলে লগ আউট করে ফেলুন।
  • ফেসবুকে বসে গেম খেলবেন নাহ।
  • ফেসবুকের অপ্রয়োজনীয় এপ্লিকেশন ব্যবহার করবেন নাহ।
  • নোটিফিকেশন বন্ধ করে দিন।
  • যে সময়টা আপনি ফেসবুকে দিতেন সেই সময় অন্যকোন কাজ করুন।
  • পড়ারসময় ফেসবুক বন্ধ রাখুন।
  • সপ্তাহের যে কোন একদিন ফেসবুক বন্ধ রাখুন।

উপরের গুলো আপনি পালন করলে আপনি ফেসবুক টাইমকিলার থেকে দূরে থাকতে পারবেন বলে আশা করা যায়। তবে মনোবল আসল আপনার মনোবল প্রখর করতে হবে।

Facebook Time Killer

সবাই ভাল থাকবেন। আজ এতটুকুই।

এই টুইটটি পূর্বে আমার ব্লগ এ প্রকাশিত।


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

মেট্রিক্স তৈরী করুন সহজেই...........
জীবনের যেকোনো কাজে সফল হওয়ার উপায় পর্ব (৪) না পড়লে নিশ্চিত ঠকবেন
জিতে নিন আকর্সনীয় প্রাইজ অতি সহজে
◘ চলুন শিখি মাউথ অরগান বাজানো ◘ আপনার প্রিয়কে ভাসিয়ে নিয়ে যান সুরের ভুবনে আর দেখুন তো এটাই আপনার প্র...
আপনার ৫০০০+ ফ্যান এর পেজ এর ফ্যান এখনি ৪ গুন করে নিন
প্রবিত্র রমজান উপলক্ষে ১০৯৯ টাকায় ডোমেইন + ১ জিবি হোস্টিং, ১৩০০ টাকায় আনলিমিটেড রিসেলার প্যানেল, ৮৪০...
পুনরায় Alcatel Onetouch Flash 2 এর বিক্রয় শুরু সাথে ফ্রি সেলফি স্টিক

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

MNUWORLD

ভালবাসি সহজ সরলভাবে চলতে, বন্ধুদের সাথে আড্ডা অথবা বেড়াতে যেতে। ইন্টারনেটে আসক্ত একজন কাজ পাগল ছেলে!!!! আমাকে খুজে পাবেন Facebook নামক টাইম কিলিং মেশিনে। আর গুগল প্লাস+

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/uncategorized/mnuworld/19988

11 comments

Skip to comment form

  1. Mortoza KONOK
    GM KONOK

    পরে ভাল লাগলো ….. পরশু আমি সকল সোসাল নেটওয়ার্ক থেকে দূরে চলে গেসিলাম… কিন্তু বিশেষ কারনে আবার ফিরতে হয়েছে….

    1. MNUWORLD

      কাজের জন্য তো ছাড় দিতে হবে!!! আকাজ না করলেই হয়!!!

  2. Rubel Orion

    হা হা হা হা…হেহেহহেহেহহেহে… হোও হো হো… 😀
    ভাই স্কাইপি’ থেকেও বিশ্রাম নেন… 😛

    1. MNUWORLD

      ভাই ওটা থেকে বিশ্রাম নিলে কাজ দিবে কে!!! বায়ার তো ওটাই ব্যবহার করে!!!

    2. Rubel Orion

      ভায়ার’রে বলেন ফেসবুক ইউজ করতে… যত ঘন্টা, তত ডলার।। 😉

    3. MNUWORLD

      বায়ার এর কাম ফেসবুকে নাহ!!!!

  3. Sadik
    Sadik

    দারুন লিখেছেন। কিন্তু কইজন যে মানতে পারবে………

    1. MNUWORLD

      না মানলে কিছুই করাই নেই। তাহার ক্ষতি সে নিজেই করবে…

  4. Barun P Mondal
    Barun P Mondal

    আজ অনেক বেশ ক’বছর আমি Facebook এ আছি। কিন্তু এটা তার ফাঁদে আমাকে ফেলতে পারেনি। তবুও আপনার লেখার জন্য ধন্যবাদ। আশা করি সবাই এটা পড়বে।

    1. MNUWORLD

      ধন্যবাদ আপনাকে । পরিমিত ব্যবহার করলে কোন সমস্যা হবার কথা নয়। অতিরিক্ত ব্যবহার কথা বলা হয়েছে এখানে।

  5. BDTelecomNews
    techshoutme.com

    ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য। http://www.techshoutme.com

মন্তব্য করুন