«

»

মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে বুলেট, নাম্বার, পেজ লে আউট সেটিং এবং প্রিন্টিং এর ব্যবহার

আমাদের কাজের ক্ষেত্রে ডকুমেন্ট বা প্রজেক্ট তৈরিতে বুলেট, নাম্বার, পেজ লে আউট সেটিং এবং প্রিন্ট করা ইত্যাদি ব্যবহারের প্রয়োজন পড়ে, বুলেটিং, নাম্বারিং এসবের ব্যবহার

আমাদের অনেকেরি আজানা। যদিও এগুলো তেমন জটিল কিছু নয়। একটু সময় নিয়ে মেনুবার দেখলেও পারা যাবে। তারপরও আমি এখানে কিছু ব্যবহার দেখাচ্ছি।
প্রথমে বুলেটিং এবং নাম্বারিং এর ব্যবহার

মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে খুব সহজে বুলেটিং এবং নাম্বারিং সম্পন্ন কোন কিছুর তালিকা তৈরি করতে পারি। এখানে বিভিন্ন ধরণের বুলেট এবং নাম্বার রয়েছে।  আমাদের ইচ্ছা বা প্রয়োজন মত যে কোনটি নির্ধারন করে দিতে পারি।যেভাবে বুলেটিং এবং নাম্বারিং এর ব্যবহার হয়।

উদাহরণ-১

উদাহরণ-২

কাজের ধারাঃ
১)প্রথমে যে সকল শব্দের আগে বুলেট বসাবো তা লিখে নিতে হবে।
২)শব্দগুলো সিলেক্ট করে নিতে হবে।
৩)হোম ট্যাব  সিলেক্ট করতে হবে।
৪)প্যারাগ্রাফ গ্রুপের বুলেট বাটনের পাশের ডাউন এরোতে ক্লিক করতে হবে। ফলে বুলেট লাইব্রেরি আসবে। ওখানে কিছু বুলেট দেয়া থাকবে সেখান থেকে সিলেক্ট করে নিতে

পারি বা আমাদের যদি আরও বেশি পরিমাণ বুলেটের দরকার হয় অবে define new bullet…এই লিঙ্ক এ ক্লিক করলে আরও অনেকগুলো বুলেট পাওয়া যাবে।


আবার যদি বুলেটগুলো দূর করে চান তবে নিচের পদ্ধতিতে কাজ করতে হবে-
১)আবার তালিকাটি সিলেক্ট করতে হবে ।
২) হোম ট্যাব সিলেক্ট করতে হবে।
৩)প্যারাগ্রাফ গ্রুপের বুলেট বাটনের পাশের ডাউন এরোতে ক্লিক করতে হবে। ফলে বুলেট লাইব্রেরি আসবে।
৪)সেখান থেকে none এ ক্লিক করতে হবে।
__________

নাম্বারিং এর ব্যবহার

বুলেটিং এর পাশে নাম্বারিং রয়েছে , এর পাশে  ডাউন এরোতে ক্লিক করে বুলেট লাইব্রেরীর মতই নাম্বার লাইব্রেরী আসবে। বুলেটিং পদ্ধতির মতই নাম্বার লাইব্রেরী থেকে নাম্বার সিলেক্ট করে এর ব্যবহার করা যায়।

আবার যদি নাম্বারগুলো দূর করে চান তবে তবে বুলেটিং পদ্ধতির মত কাজ করতে হবে-

১)আবার তালিকাটি সিলেক্ট করতে হবে ।
২) হোম ট্যাব সিলেক্ট করতে হবে।
৩)প্যারাগ্রাফ গ্রুপের নাম্বার বাটনের পাশের ডাউন এরোতে ক্লিক করতে হবে। ফলে নাম্বার লাইব্রেরি আসবে।
৪)সেখান থেকে none এ ক্লিক করতে হবে।


___________
অরিয়েন্টেশন সেট করা

ডকুমেন্ট ছাপার আগে পেজের অরিয়েন্টেশন চেঞ্জ করতে হয়। সাধারনত ২ ধরণের অরিয়েন্টেশন আমরা ব্যবহার করে থাকিঃ পোট্রেট এবং ল্যান্ডস্কেপ।
যেভাবে সেট করবো-
১)পেজ লে আউট সিলেক্ট করতে হবে,
২)ওখান থেকে অরিয়েন্টেশন এ ক্লিক করলে পোট্রেট এবং ল্যান্ডস্কেপ আসবে, সে কোনটি সিলেক্ট করে দিতে হবে।

পেজ সাইজ নির্ধারন

১)পেজ লে আউট সিলেক্ট করতে হবে।
২)পেজ সেট আপ গ্রুপের সাইজ এ ক্লিক করে হবে। একটি তালিকা আসবে।
৩)ওখান থেকে যেকোনটি সিলেক্ট করে দিতে হবে।


_______________
মার্জিন সেট করা

১)পেজ লে আউট সিলেক্ট করতে হবে।
২)পেজ সেট আপ গ্রুপের মার্জিন এ ক্লিক করতে হবে। একটি তালিকা আসবে।
৩)ওখান থেকে যেকোনটি সিলেক্ট করে দিতে হবে।


______________

পেজ নাম্বার যুক্ত করা
পেজ নাম্বার যুক্ত করার কিছু সুবিধা আছে। তাছাড়া এটি ডকুমেন্টকে গুছিয়ে রাখে। কেউ প্রয়োজনে কিছু খুঁজতে চাইলে সহজে পাওয়া যায় পেজ নাম্বার ব্যবহার করে। পেজের

উপরে নিচে যেকোন জায়গায় পেজ নাম্বার বসানো যায়।

যেভাবে সেট করবো-
১) ইন্সার্ট ট্যাব এ ক্লিক করতে হবে
২) পেজ নাম্বার বাটনে ক্লিক করতে হবে।
একটি ড্রপ ডাউন মেনু আসবে ওখান থেকে প্লেস ঠিক করে দিতে হবে।

_________________

প্রিন্ট ভিউতে পরিবর্তন করা
১) ভিউ ট্যাব এ  ক্লিক করতে হবে
২) প্রিন্ট লে আউটে ক্লিক করতে হবে

ইন্সার্ট পেজ ব্রেক
পেজ প্রিন্ট করার পর কোথায় একটা পেজ শেষ হবে এবং কোথায় অন্য পেজ শুরু হবে তা দেখতে পাওয়া যাবে পেজ ব্রেক এর মাধ্যমে।

যেভাবে সেট করবো-
১) ইন্সার্ট ট্যাব এ ক্লিক করতে হবে
২) পেজ ব্রেক বাটনে ক্লিক করতে হবে।


———-
প্রিন্ট করা

সব কাজ শেষ করে যখন প্রিন্ট এর জন্য প্রস্তুত,  তখন চাইলেই এর প্রিভিউ দেখে নেয়া যায়। প্রিভিউ মুডে প্রত্যেকটা পেজ আলাদা ভাবে রিভিউ করা যায়, একসাথে

অনেকগুলো  পেজও দেখতে পাওয়া যায় , জুম করা যায় সাইজের আকার, মার্জিন, ওরিয়েনটেশন ইত্যাদি  পরিবর্তন করা যায় ।
যেভাবে করবো-
মাইক্রোসফট অফিস বাটনে ক্লিক করলে একটি মেনু আসবে ।
প্রিন্ট অপশন হাইলাইট করতে হবে।
প্রিন্ট প্রিভিউতে ক্লিক করলে  প্রিভিউ উইন্ডো দেখা যাবে ডকুমেন্টসহ।
একসাথে এক পেজ দেখতে চাইলে one page এবং একসাথে দুই পেজ দেখতে চাইলে two page এ ক্লিক করতে হবে।
স্বাভাবিকভাবে দেখতে চাইলে নরমাল সাইজে ক্লিক করতে হবে।
জুম বাটনে ক্লিক করলে জুম বক্স আসবে
অপশন সিলেক্ট করে ওকে বাটনে ক্লিক করতে হবে।
প্রিন্ট এর জন্য সব প্রস্তুতি শেষ। এখন চাইলে সব পেজ একসাথে প্রিন্ট করা যাবে আবার আলাদা আলাদাভাবে ও করা যাবে আবার মাঝখান থেকেও পেজ সিলেক্ট করে দেয়া যাবে

যেমন ধরা যাক ১, ৩, ৫ ,১৫ এই পেজগুলো করলে এভাবে লিখলে হবে আবার ৪-১০ এই পেজগুলো প্রিন্ট করতে চাইলে তাও সিলেক্ট করা যাবে।
যেভাবে প্রিন্ট করবো-
প্রিন্ট বাটনে ক্লিক করলে প্রিন্ট ডায়লগ বক্স আসবে
ডাউন এরোতে ক্লিক করলে একটি পেজ আসবে, সব ঠিক করে
ওকে ক্লিক কুরলে ডকুমেন্ট প্রিন্ট হয়ে যাবে।

পোস্টটি লিখেছেন টিউটোহোস্ট এর সাপোর্ট বিভাগে কর্তব্যরত নিলুফার ইয়াসমিন। পুর্বে প্রকাশিত এখানে


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

এবার আপনিই হন জাদুকর 3D স্টুডিও ম্যাক্স দিয়ে (টিউটোরিয়াল) (২য় পর্ব)
আপনার মোবাইলে ইমেইল সুবিধা নাই? এই দুঃখ রাখবেন কোথায়? এখানে রাখুন আর নিয়ে যান বিজয়ের হাসি !i!
বৃত্তের ক্ষেত্রফল নির্ণয়ে সি প্রোগ্রাম ……..
আপনার ডেস্কটপকে দিন 3D View !!!
:: বাইপাস করুন ফেসবুকের PHOTO VERIFICATION ::
বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান ম্যাচের বল বাই বল লাইভ স্কোরসহ স্ট্রিমিং দেখুন এখানে
Doller Buy, Sell & Exchange BD Wallet ex

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

tutohost

টিউটোহোস্ট (TutoHost.com) বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় ওয়েব হোস্টিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। যুক্তরাস্ট্রভিত্তিক দ্রুতগতির বেশ কিছু ওয়েব সারভারে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো নিরাপদে সংরক্ষণ করা হয়। আমরা এদেশে ২৪ ঘন্টা এবং বছরে ৩৬৫ দিন অনলাইন এবং ফোন সাপোর্টের ব্যবস্থা রেখেছে। যোগাযোগ- ০১৯১৫৬৩৪৩২৮ ও ০১৯৭৫৬৩৪৩২৮

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/tips-tricks/tutohost/32624

মন্তব্য করুন