«

»

টেকটুইস এর মত কমিউনিটি ব্লগে কেন লিখবেন।

আমরা অনেকেই লেখালেখি পছন্দ করি। কেউ নিজের ব্লগে, কেউ পত্র পত্রিকায়, কেউ কোন কমিউনিটি ব্লগে, কেউ বা নিজের হ্যান্ড নোটে।

কমিউনিটি ব্লগ গুলোতে লিখলে আপনার লেখাটাকে অনেকের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারবেন। জানাতে পারবেন অনেককে। আর যত বেশি মানুষ জানবে, আপনার লেখা পড়বে, তত আপনাকে মানুষ চিনবে। আসলে আমাদের সকলের মনের মধ্যেই একটা লুকায়িত চিন্তা থাকে। আমাকে সবাই চিনুক। আপনি যদি লেখা লেখি করে থাকেন তাহলে আপনার এই লুকায়িত স্বপ্ন সহজেই সফল হতে পারে। আজ আমি আপনাকে চিনি, বা আপনি আমাকে চিনেন এ লেখালেখি করার জন্যই। আপনি কেন লিখেন জানি না। তবে আমি লিখি আমার লেখা যেন সবাই পড়ে। সবাই পড়ে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে। আমার ভুল ধরিয়ে দেয়, যেন আমি গতকাল থেকে ভালো আরেকটা লেখা লিখতে পারি। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে জানতে ভালো লাগে আর যা জানি তা আবার সবার সাথে শেয়ার করতে আরো ভালো লাগে। আমার নিজের ও একটা ব্লগ রয়েছে জাকিরের টেক ডায়েরী নামে। আমি জানি না কয়জনে তা ভিজিট করে। ঐ খান থেকে আমার টেকটুইটস এ ই লিখতে ভালো লাগে। অনেক মানুষ আমার লেখা পড়তে পারে, যেন আমি অনেক মানুষের মাঝে পৌছে যাই। আমার মত অনেকেই নিজের ব্লগ খুলে লেখা লেখি করে থাকেন। কিন্তু নিজের লেখা গুলো কয়জনের কাছে পৌছাতে পারেন? মনে হয় না বেশি মানুষ পড়ে। আর পড়লেও নিজের পরিচিত মানুষ ছাড়া আর কেউ না। বাংলা সার্চ এত বেশি হয় না যে আপনার লেখাটা সবা সার্চ করে পাবে এবং পড়বে। তবে যদি কমিউনিটি ব্লগে লিখে থাকেন তাহলে অনেকের চোখেই লেখাটা পড়বে। অনেকেই লেখাটা পড়ে। মন্তব্য করে। তাই না?  এটা তো হচ্ছে সবার মধ্যে লেখাটা ছড়িয়ে দেওয়া নিয়ে।

আরেকটা হচ্ছে লেখা গুলোর নিরাপত্তা। অনেকেই নিজের ব্লগ খুলে কয়েক দিন পর আগ্রহ হারিয়ে পেলে। অনেকেই আবার নিয়মিত দেখাশুনা না করতে পারায় ব্লগটির কোন ত্রুটি দেখা দেয়। ফলে আর ঠিক করা হয়ে উঠে না অনেকের পক্ষেই। তাই তা লেখা গুলোও হারিয়ে যায়। আসলে যারা লেখা লেখি করে তাদের অনেকেই ছাত্র। তাই যখন পড়ালেখা শেষ করে চাকুরি জীবনে প্রবেশ করে তখন আর ব্লগ লেখার মত মানষিকতা থাকে না। তাই নিজের ব্লগের রেজিস্ট্রেশন রিনিউ করা হয় না। আর তার ফলে লেখা গুলো হারিয়ে যায় ইন্টারনেট থেকে। আমার পরিচিত অনেককেই বলছি কমিউনিটি ব্লগেও লিখুন। তারা কেউ কেউ সাড়া দিয়েছে কেউ কেউ দেয় নি।

আপনি যদি নিজের ব্লগে লিখে থাকেন তাহলে কম পাঠকের জন্য আপনার লেখার পরিপক্কতা সম্পর্কে আপনি ধারনা নিতে পারবেন না। আপনি কেমন লিখে থাকেন তাও জানতে পারবেন না। কমিউনিটি ব্লগে এটা সম্ভব। আপনারা অনেকেই জেনে থাকবেন যে আজ অনেক গুলো ব্লগারের বই বের হয় বই মেলা থেকে। তারা কয়েক দিন আগে শুধু ব্লগারই ছিল। তারা চিন্তা ও করে নি তারা অনেক বড়ো লেখক হবে তার বই প্রকাশ হবে। আবার সে সকল বই অনেকেই কিনবে। হ্যা তাই হচ্ছে। অনেকেই আজ তাদের বই কিনে, কারন ব্লগারদের বই বের হলে অনেক সহ ব্লগারই তা প্রচার করে। তারফলে সবাই জানতে পারে। আবার সবাই বই টি বই মেলাতে গিয়ে কিনেও আনে…

আমি আজ ও চিন্তা করি আমার লেখা গুলো সম্পর্কে। এগুলো কে কিভাবে পৃথিবীর শেষ পর্যন্ত টিকিয়ে রাখা যায়। আমি নিজেও জানি আমার ব্লগটি কয়েক দিন না হোক কয়েক বছর পর বন্ধ হয়ে যাবে। কয়েক বছর না হোক আমার মৃত্যুত পর আর তার অস্তিত্ব থাকবে না। তখন আমার লেখা গুলোও হারিয়ে যাবে। কিন্তু আমি বেচে থাকতে চাই, আমার লেখা গুলোর মাঝেই আমি বেচে থাকতে চাই। সত্যি। আমি যা লিখি, তা এ চিন্তা করেই লিখি যে আমার লেখা গুলো অনেক দিন বেচে থাকুক।

আপনি হয়তো পত্রিকায় লিখে থাকবেন। পত্রিকায় লিখলেও তা ও হারিয়ে যায়। কয় জনে পুরাতন পত্রিকা পড়ে দেখে? কিন্তু আপনি যদি ব্লগে লিখে থাকেন আপনার লেখা কোনদিন ও পুরাতন হবে না। যে ছেলেটা আজ ইন্টারনেটে আসবে সে যদি আপনার লেখার বিষয়বস্তু লিখে সার্চ করে তাহলে আপনার লেখাটা পেয়ে যাবে। আর ওর কাছে আপনার লেখাটা পুরোই নতুন মনে হবে। এমনই তো হয় তাই না?  আচ্ছা, পত্রিকায় লেখা পাঠালে আপনার সব গুলো লেখাই কি প্রকাশ হয়? না হয় না। আর এ দিক দিয়ে ব্লগ গুলো সবচেয়ে বেশি উদার। লেখকদের স্বাধীনতা আছে। নিজের লেখা নিজেই প্রকাশ করতে পারে। আর এতে মনে হয় না কোন লেখার মান কমে যায়।

আর আরেকটা বিষয় কি জানেন? পত্রিকায় লেখালেখি করে এমন অনেকেই অনলাইন ব্লগ গুলোর উপর নির্ভরশীল। ব্লগ গুলোতে অনেক ধরনের নতুন নতুন তথ্য পাওয়া যায়। তা থেকে ধারনা নিয়ে অনেকে তা আবার পত্রিকায় লিখে। আবার এর ব্যাতিক্রম ও হয়। যেমন অনেকে আবার পত্রিকা থেকে ধারনা নিয়ে ব্লগ লিখে। ভালো লাগে এসব।

আপনি যদি হ্যান্ড নোট লিখে থাকেন, যাকে ডায়রী বলা যায়। তাও একদিন হারিয়ে যাবে।। কিন্তু আমি চাই না আমি হারিয়ে যাই!! জানেন আমার খুব বেচে থাকতে ইচ্ছে করে…

কি করব আমি? হ্যা, টেকটুইটস বা কমিউনিটি ব্লগ গুলোর একটা সুবিদা রয়েছে। এ গুলোর দ্বায়িত্ত্ব অনেকের কাছে থাকার কারনে এগুলো হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। এক জনের হাত থেকে হয়তো দ্বায়িত্ত্ব পরিবর্তন হবে।। তাই হয়তো আমার লেখা গুলোও থাকবে পৃথিবীর বুকে।। আর কিছু জানি না।

লেখটা লিখছি তাই বলে যে শুধু টেকটুইটস এ লিখতে হবে এমন না। আমার ভালো লাগে টেকটুইটস তাই আমি এখানে লিখি। আপনার যে কমিউনিটি ব্লগ ভালো লাগে আপনি সেখানেই লিখতে পারেন। আপনার জ্ঞান সবার মাঝে ছড়িয়ে দিন। নিজের ছোট লেখাকে কোন দিন ও অবহেলা করবেন না। হয়তো ঐ ছোট লেখাদিয়েই আপনি সবার কাছে পরিচিত হতে পারবেন।

সবাই লিখুক। সবাই পড়ুক। সবাই জানুক।

সকলের জন্য শুভ কামনা… সবাই স্বপ্ন দেখুক, সবার স্বপ্ন গুলো পূরন হোক।


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

এবার জানুন আমাদের প্রিয় বাংলাদেশকে
আসুন ওয়েবসাইট তৈরি করি HTML,CSS,JAVA এর সাহায্যে A to Z (৩য় পর্ব)
টেকটুইটস এর ছোট একটা আপডেট
এইডস কি? বাঁচতে হলে জানতে হবে।
আপনার ব্লগের জন্য ৩৯ টি Premium Flash Templates এখনি ডাউনলোড করে নিন একদম Free তে (না দেখলেই মিস)
ওয়ালপেপার ও ফেইসবুক কভার-টাইমলাইনের জন্য নতুন একটি ওয়েব সাইট আপনার কাজে লাগতে পারে।
100 plus Book marking Site list for web developer

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

জাকির হোসাইন

প্রোগ্রামিং বা ফ্রীল্যান্সিং নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে টেকটুইটস সাহায্য বিভাগে পোস্ট দিতে পারেন অথবা আমাকে ফেসবুকে মেসেজ দিতে পারেন।

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/selected/jakirbdl/21856

5 comments

Skip to comment form

  1. LuckyFM

    সবাই লিখুক পড়ুক জানুক

  2. tusin

    হুম…….
    “সবাই লিখুক। সবাই পড়ুক। সবাই জানুক।”
    সুন্দর বিশ্লেষনধমী লেখা।

  3. MahmudulHasanMu

    100% right kotha. agamite e-writer, e-book except cintai kora jai na.

  4. ধুর ভাল লাগেনা...
    তামিম(বাংলার মানুষ)

    লেখাটা স্টিকি করা হোক

  5. MNUWORLD

    প্রথমেই ধন্যবাদ এইরকম একটা বিশ্লেষণধর্মী লিখার জন্য। অনেক সুন্দর একটি লিখা…

    সবাই লিখুক। সবাই পড়ুক। সবাই জানুক।

মন্তব্য করুন