«

»

১৯ বছরের মধ্যে সবছেয়ে বড় চাঁদটি এখনি দেখে আসুন

আজ ১৯ এ মার্চ পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি আসছে চাঁদ। পৃথিবীর একমাত্র উপগ্রহ টি এবারে বড় আকারে দেখার সুযোগ মিলছে।  আমি কয়েকবার গিয়ে দেখে আসছি আপনি ও গিয়ে দেখে আসুন। এ সুযোগ হয়তো আর নাও পেতে পারেন। প্রতি ১৯ বছর পর পর চাঁদ পৃথিবীকে পরিক্রমনের সময় পৃথিবীর কাছে চলে আসে আর পৃথীবী থেকে এ দূরত্ত্ব হয় ২১ হাজার ৫৬৭ মাইল। ১৯ বছর পরপর পৃথিবীর কাছে চাঁদ চলে আসার এই ঘটনাটিকে বলে লুনার পেরিগি।

এটি স্বাভাবিক আমরা যে চাঁদ দেখি তার থেকে শতকরা ১৪% বড় এবং ৩০% উজ্জ্বল দেখাবে।

চিন্তা করছেন সূর্য পৃথিবীর কাছে আসলে যেমন চশমা লাগে সূর্য দেখতে তেমনি চাঁদ দেখতে ও কি লাগবে?? না চাঁদ দেখতে কোন চশমা লাগবে না। খালি চোখেই দেখে আসতে পারবেন। তবে যদি টেলিস্কোপ দিয়ে দেখেন কেউ তাহলে তাদের মুন ফিল্টার ব্যবহার করতে হবে। ( আমার কোন টেলিস্কোপনেই L )

বাংলাদেশ অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন এখন ধানমণ্ডি খেলার মাঠে চাঁদ পর্যবেক্ষণ ক্যাস্প করতেছে। বিজ্ঞান ক্লাব অনুসন্ধিৎসু চক্র এ উপলক্ষে মিরপুরের জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যানে বৈজ্ঞানিক পর্যবেক্ষণ ক্যাম্প স্থাপন করেছে ।তারা এখন ওই ক্যাম্প থেকে সুপারমুনের ছবি ও বৈজ্ঞানিক তথ্য সংগ্রহ করছে।

চঁআদ দেখায় করনীয়  ও সতর্কতা সম্পর্কে  অনুসন্ধিৎসু চক্র বলেছে, খালি চোখেই এই পূর্ণিমার চাঁদ দেখা যাবে। যারা টেলিস্কোপ বা বাইনোকুলার দিয়ে পর্যবেক্ষণ করবে, তাদের অবশ্যই মুন ফিল্টার ব্যবহার করা উচিত, নয়তো চোখের ক্ষতি হতে পারে। যারা ছবি তুলতে আগ্রহী, তাদের ক্ষেত্রে পরামর্শ, অটো মুডে বা অ্যাপরাচার/আইরিশ কমিয়ে ছবি তুলতে হবে।

চাঁদ কাছে আসা মানে কি শুধুই সৌন্দ্যয্য??

না চাঁদ যত বার ই পৃথিবীর কাছে আসছে ততবার ই একটা না একটা দূর্যোগ বয়ে এনেছে। বিবিসির সংবাদে শুনছি আমি, জাপানের এ দূর্যোগের জন্য ও চাঁদ দায়ী। যত বার পৃথিবীর কাছে চাঁদ আসছে ততবার জাপানের ঐ অঞ্চলে একটা না একটা পাকৃতিক দূর্যোগ ঘটে গেছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, সুপারমুনের মতো এসংবাদ মাধ্যমটি জানিয়েছে, চাঁদ পৃথিবীর নিকটবর্তী হওয়া মানেই পরিবেশ বিপর্যয়ের শঙ্কা। কারণ ২০০৫ এবং ১৯৭৪ সালে চাঁদ কাছাকাছি চলে এসেছিল। আর ওই বছরগুলোয়ই সামুদ্রিক সাইক্লোন এবং সুনামির মতো ঘটনা ঘটেছিল।

যারা জোয়ার ভাটা সম্পর্কে জানেন তাদের তারা তো জানার কথা যে চাঁদের আকর্ষণেই জোয়ার-ভাটা হয়।

আপনারা যদি কেউ ছবি ও তথ্য সংগ্রহ করতে চান তাহলে নাঈমুল ইসলাম অপু, সহ-সভাপতি, জ্যোতির্বিজ্ঞান বিভাগ, অনুসন্ধিৎসু চক্র, ফোন- ৭২৭৫৮৮৫, ০১৯১৪৭২৮৬৪০ নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

তথ্য সূত্র বা রেফারেন্সঃ

  1. http://www.prothom-alo.com/detail/date/2011-03-19/news/139694
  2. দৈনিক নয়াদিগন্ত
  3. দৈনিক সমকাল
  4. বিবিসি বাংলা এফএম রেডিও

এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

কম্পিউটার কেনার আগে যে সব বিষয়ের প্রতি লক্ষ্য রাখবেন
ইটের ভাটা থেকে অক্সিজেন + মিথেন উতপাদন করুন এবং পরিবেশ বাঁচান
এবার ফেসবুক নতুন বৈশিষ্ট্য সংযুক্ত করলো গ্রাফ সার্চের মাধ্যমে!
স্যামসাং বনাম অ্যাপল, স্যামসাংকে ১১৯ মিলিয়ন ডলার জরিমানা!
Bluetooth এবং WIFI আপনার স্বাস্থ্যের জন্যে ক্ষতিকর..?
৫০% ডি্সকাউন্ট ওয়েব ডেভেলমেন্ট কোর্সে
আসুন জানি B2B কি?? বিশ্ববাজারে এর চাহিদা

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

জাকির হোসাইন

প্রোগ্রামিং বা ফ্রীল্যান্সিং নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে টেকটুইটস সাহায্য বিভাগে পোস্ট দিতে পারেন অথবা আমাকে ফেসবুকে মেসেজ দিতে পারেন।

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/science-tech/jakirbdl/1712

2 comments

  1. তাওহিদুল ইসলাম

    আপনার প্রতি রাগ হইল। আপনি আমাকে আগে স্বরন করাবেন না।

    1. ঐ ছেলেটি
      jakir

      🙁 আমি ফেসবুক, টেকটুটস, টেকটিউন্স সব জাগায় শেয়ার করছি।

মন্তব্য করুন