«

»

ভূ-মধ্যসাগরের সৃস্টি রহস্যঃ

চির আখাংকিতো সজিব বসন্তের শীতল শুভেচ্ছা থাকলো আমার সব টুইট্‌স বন্ধুদের জন্য। আমাদের প্রিয় এই সাইট্‌টি-তে নিজের সত্ত্বাকে যখন দেখতে পাই,ভীষন আনন্দ হয়,আর তাই আজ সাগর নিয়ে কিছু কথা।। আশা করি ভালো লাগবে, ভূলত্রুটি ক্ষমার দৃস্টিতে দেখবেন,সত্যিই আমি আপনাদের নিকট চির কৃতজ্ঞ।

ভূ-মধ্যসাগর নিয়ে আমাদের অনেকের অনেক আগ্রহ রয়েছে।আর ছোটবেলায় যখন পাঠ্যবইয়ে পড়তাম তখন তো এর বিশাল জলধারা নিয়ে চিন্তায় মগ্ন থাক্‌তাম। চলুন এর সৃস্টি রহস্য টা একটু জেনে নিইঃ

ড্যানিয়েল গার্সিয়া ক্রাস্টেলানসের নেতৃত্বে রিসার্চ কাউন্সিল অব স্পেন এর গবেষকরা বলেছেন, পঞ্চাশ বছরের-ও আগে আকস্মিক এক ঢল ও এর মাধ্যমে সৃস্ট বন্যায় ভূ-মধ্যসাগর পুর্ন হয়েছিলো।আতলান্তিক মহাসাগরের পজানি জিব্রাল্টার প্রনালির ফাটলের মধ্য দিয়ে ভূ-মধ্যসাগরে আছড়ে পড়ে।ক্রমশ সেই ফাটল ধসে আতলান্তিক থেকে আসা বিপুল পরিমান পানিতে দুই বছরেই পুরন হয়ে যায় ভূ-মধ্যসাগর। গবেষক দল পাহাড়ি ঝর্নার বিভিন্ন মডেল থেকে এ সিদ্ধান্তে এসেছেন।

পাহাড়ি লেক গুলো থেকে যেভাবে নদীর মাধ্যমে পানির প্রবাহ ঘটে সেভাবেই ভূ-মধ্যসাগরে বন্ন্যার সৃস্টি।২০০কিলোমিটার চ্যানেলের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত পানির পরিমান নির্নয় করে এ রহস্যের সমাধান করা হয়েছে।

জিব্রাল্টার প্রনালির সাগরতলে গাটলের পরিমান আর বিভিন্ন সিস্মিক উপাত্ত গবেষনা করে বিজ্ঞানিরা অনুমান করছেন, জিব্রাল্টার প্রনালি ছিল অনেকটা বদ্ধ দরজার মত।সেখানে পানির প্রচন্ড চাপ ক্রমশ একটি চ্যানেল তৈরি করে। সেই চ্যানেল বড় হয়ে গিয়ে এক পর্যায়ে আকস্মিক বন্যার সৃস্টি করে।বিভিন্ন কম্পিউটার মডেল তৈরি করে তারা বন্যার স্থায়িত্ব ও নির্নয় করেন।

দুই মাস থেকে দুইবছরের মধ্যে ভূমধ্যসাগরের শতকরা ৯০ভাগ পানিতে ভর্তি হয়ে যায়।আগে অনুমান করা হত এ সময়টা ১০ হাজার বছর।এ আকস্মিক বন্যায় পাহাড় সমান উচ্চতা নিয়ে পানি ভূমধ্যসাগরে আছড়ে পড়ে আর প্রতিদিন ১০ মিটার করে উচ্চতা বাড়তে থাকে।

বায়ুমন্ডলের তাপমাত্রা যেভাবে বাড়ছে, সেভাবে তো আমরা অনিশ্চিত নাকি নিশ্চিত ভবিষৎ’’-এর দিকে এগিয়ে যাচ্ছি তাই ঠিক করে বলা মুশকিল হয়ে পড়েছে !।তবুও আমরাই পারি কিছু করতে,আমাদের পরিবেশ কে, আমাদের দেশ কে,তথা গোটা পৃথিবিটাকে বদলাতে……………।


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

নতুন প্রত্যাশাঃ তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ!
টিকটিকির সাতকাহন!!
কম্পিউটারকে নিরাপদে রাখুন
ঈশ্বরের কণা আবিষ্কারের দ্বার প্রান্তে
অ্যাপল উন্মুক্ত করল নতুন আইম্যাক
আপনার সিম নাম্বার গোপন রেখে কল করেন বিটিএস এর নতুন বাংলাদেশী 09601XXXXXX নাম্বার থেকে !
এখন চাইলে আপনিও পারবেন ইচ্ছা মত নাম্বার বানিয়ে কল করতে।

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

Mehedi

বিজ্ঞানের এই জগৎটা একটা নিরন্তর পুনবর্ণর্নার, পুনঃআবিষ্কারের জগৎ । যিনি যত নিষ্ঠার সাথে বয়ান করে যাবেন, তাঁর তত বেশি আবেদন। আমরা যারা ক্ষুদ্রের কাছেও ক্ষুদ্র তাদের মজাটাও যে বয়ানে, যে বয়ান যত নিবিষ্ট, যত বাস্তব, তত তার জীবনের সমান্তরাল হয়ে ওঠা। বিজ্ঞান জীবনের বিকল্প নয়, জীবনের বিকল্প আসলে কিছু হতে পারেনা।

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/science-tech/bright-space/457

6 comments

Skip to comment form

  1. Rubel Orion

    গুড ওয়ার্ক ডান উজ্জ্বল শুন্য ভাই…

    1. bright space

      উজ্জ্বল শুন্যতা ঃ ধন্যবাদ অরিয়ন ভাই

  2. ঐ ছেলেটি
    jakir

    ভালো লাগল। হা আমাদের এখনি সময় নিজেদের সতর্ক করার। ধন্যবাদ সুন্দর টুইটস এর জন্য ।

    1. bright space

      আপনার ভালো লাগলো লেখাটা দেখে আমারও অন্নেক ভহালো লাগলো। ধন্যবাদ

  3. zahid hassan

    ভালো লাগল।

    1. ব্রাইট স্পেস

      ধন্যবাদ।।
      দোয়া করবেন এবং ভালো থাকবেন

মন্তব্য করুন