«

»

সাইন্স ফিকশন – নবজাতক [পর্ব-১]

নবজাতক
মাহ্দী মুহাম্মাদ

“এই শোনো” জেসি বলল ফ্রেডরিখকে। “বল শুনছি” উওর দিল ফ্রেডরিখ। জেসি তখন লজ্জিত কন্ঠস্বরে বলল “আমি মা হতে যাচ্ছি, জানো।” ফ্রেডরিখ বলল (আনন্দের সাথে)“সত্যি! তার মানে আমি বাবা হতে যাচ্ছি।” “হ্যা।” “ওহ জেসি, আমি সত্যিই ভাগ্যবান বলে মনে করছি নিজেকে এখন। তেমাকে আকাশের অগনিত তারার মত অগনিত লাল গোলাপের শুভেচ্ছা।”“ধন্যবাদ ফ্রেডরিখ।”

তারপর জেসি ও ফ্রেডরিখের দাম্পত্য জীবন সুখে হেসে খেলে কেটে যাচ্ছিল । কিন্তু কিছুদিন পর প্রতিরক্ষা দপ্তর থেকে এই তথ্য নিশ্চিত করা হল যে “কিছুদিনের মধ্যে মহাজাগতিক প্রানীরা পৃথিবী কে ধংস করার জন্য আক্রমন করবে।” তাই পুরো পৃথিবীতে রেড এলার্ম চালু করা হল এবং পৃথিবীর সবাইকে নিরাপদে থাকার জন্য অনুরোধ করা হল।
একদিন রাতে পুরো পৃথিবী ঘুমে বিভোর এমন সময় মহাজাগতিক প্রানীরা পৃথিবীতে আক্রমন করল। হঠাৎ একটি বিরাট বিস্ফোরন। কেঁপে উঠল সারা শহর। জেসি ও ফ্রেডরিখ শব্দ শুনে ঘুম থেকে জেগে উঠল। জেসি ভয় পাবার কন্ঠে বলল “কিসের শব্দ এটা? ঘর এভাবে দুলছে কেন?” “মনে হয় মহাজাগতিক প্রানীরা আমাদের আক্রমন করে ফেলেছে। “দাড়াও।” ব্েরল ফ্রেডরিখ রেডিওটা অন করে। রেডিওতে বারবার করে বলা হচ্ছে শহরে মহাজাগতিক প্রানীরা আক্রমন করেছে। সবাইকে নিরাপদে থাকার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। আমাদের প্রতিরক্ষা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে লড়ে যাচ্ছে…….। ফ্রেডরিখ রেডিওটা অফ করে চিন্তিত মুখে পায়চারি করতে থাকে। এতক্ষন জেসি কোন কথা বলে নি। এবার সে বলল “তাহলে উপায়? আমরা কি মারা যাব? আমাদের অনাগত সন্তান …..।” “প্লীজ, জেসি এরকম বিপদে অলুক্ষনে কথা বলো না। নিশ্চই ‘ঈশ্বর’ আমাদের রক্ষা করবেন।” “জানো ফ্রেডরিখ, যখন আমি জানতে পারলাম আমি মা হতে যাচ্ছি তখন যে আমার কি আনন্দ হয়েছে তা তোমাকে বলে বোঝাতে পারব না। আমার ভাবতে অবাক লাগে আমি মা হতে চলেছি। আমার পেটের ভিতরে আমাদের সন্তান। সে আমার শীররের ভিতরে থেকে অল্প অল্প করে বড় হচ্ছে। মনে হচ্ছে ও আমার শরীরের একটি অংশ হয়ে গেছে।” বলে কাঁদতে থাকে জেসি। তখন ফ্রেডরিখ তাকে জড়িয়ে  তার ঠোটে চুমু খেয়ে বলে  দেখো কিছুই হবে না। সব আগের মত হয়ে যাবে।” বলতে গিয়ে ফ্রেডরিখের কন্ঠ  কঁেপে উঠল সত্যিই সব কিছু আগের মত হয়ে যাবে। মনে মনে ভাবল ফ্রেডরিখ। তখস জেসি তার পেটে হাত বুলাতে বুলাতে ফসিফসি করে বলল “সবকিছু ঠিক হয়ে গেলেই ভালো।”

তারপর খেকে মহাজাগতিক প্রানীদের সাথে মানুষের এই যুদ্ধ চলতে থাকল। অনেক মানুষ মারা গেলো, অনেকে আত্মীয়-স্বজন হারালো, অনেকে বাড়ীঘর ছেড়ে যাযাবরের মত জীবনযাপন করতে লাগল। তাদের মত জেসি ও ফ্রেডরিখও ছন্নছাড়া হয়ে এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় ঘুরে বেরাতে লাগল। অনিদ্রা, ক্ষুদা, পিপাসা তাদের অবস্থা আরো বেশী খারাপ করতে লাগল। বেশী শোচনীয় হল জেসির অবস্থা। সে এমনিতেই গর্ভাবস্থায় তার উপর নিয়তির এ রকম নিষ্ঠুর আচরন।

একদিন সকালে জেসি একটি পুত্র সন্তান জন্ম দিল। তারপর সে তার সন্তানকে বুকে টেনে ফ্রেডরিখ কে বলল “একে আমি তোমার কাছে রেখে যাচ্ছি। একে তুমি একজন নেতার আদলে তৈরি করবে। ‘কন্তিু  তুমি ..?বলল ফ্রেডরিখ । আমি চলে যাচ্ছ,পরর্বতী জীবনে আমারা অবশ্যই মলিতি হব। তারপর সে তার সন্তানের কপালে চুমু খেয়ে বলল “বিদায়।” পরক্ষনে সে মারা গেল। ফ্রেডরিখ পাথুরে মূতির মত নিশ্চুপ হয়ে বসে রইল। তখন  সে ভবল তাকে ভেঙ্গে পরলে চলবে না। তাকে জেসির কথা পূরন করতে হবে। তখন সে নবজাতকটিকে কোলে নিয়ে উপরের দিকে তুলে ধরল এবং বলতে লাগল  হে নবজাতক তাকিয়ে দেখ এই উন্মাদ প্রায় পৃথিবীর দিকে। এই বিশৃঙ্খল  পৃথিবীর পরিচলিনার দায়িত্ব তোমাকেই নিতে হবে। এই অসহায় মানুষের পাশে দাড়াতে হবে তোমাকেই। এই মহাজাগতিক প্রানীদের হাত থেকে এই সুন্দর পৃথিবীকে রক্ষার দায়িত্ব তোমার উপর বর্তায়।”

নবজাতক শিশুটি তখন হাত-পা ছুড়ে শুধু কাঁদতে থাকল।

পরর্বতী র্পাট পরে পোষ্ট করব। টাইপ করার সময় পাচ্ছি না। যদি আপনাদরে কাছে ভাল লাগে তাহলে অবশই দ্রুত পোষ্ট করব।


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

mahdi

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/science-fiction/mahdi/4714

6 comments

Skip to comment form

  1. ঐ ছেলেটি
    jakir

    পরবর্তী পর্বের অপেক্ষায়…

  2. zahid hassan

    জেসির জন্য একটু কষ্ট পেলাম। অনেক ভাল লাগলো। আপনার মধ্যে আমি বড় উপন্যাসিক দেখসি। প্রথম পর্ব টি অনেক সুন্দর হয়েসে। অনেক অনেক ধন্যযোগ।

  3. md.rifat bara

    দোস্ত তাড়াতাড়ি পরের পর্বটা পোস্ট কর……………নাইলে কিন্ত সকালে বাসায় যাইয়া মাইর লাগামু। তোর লেখাটা চমৎকার হইসে। পুরা আইজ্যাক অ্যাসিমভ এর মত। আমি যে এত বড় একজন সাহিত্যিক এর লগে চলাফেরা করি এইটা ত আগে জানতামই না……………………………।।

  4. mahdi

    সবাইকে অনেক ধন্যবাদ।

  5. হাসান

    অপেক্ষায় আছি। অনেক ধন্যবাদ।

  6. sabuj

    onek valo lekos tui…….porer porbo taratari lek…..opekkhay roilam

মন্তব্য করুন