«

»

Nazrul

খারাপ চেহারার লোক কেন ভালো নেতা

দৈহিক সৌন্দর্য বিভাগে ঘাটতি? দুর্ভাবনার কিছু নেই। বরং একজন ভালো নেতা হওয়ার সুযোগ! সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, যাঁরা ভালো নেতা, তাঁদের চেহারা বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই খুব একটা দৃষ্টিনন্দন নয়। খারাপ চেহারার লোকজন সব দিক থেকে নিজেদের দক্ষতা বাড়িয়ে ঘাটতি পূরণের চেষ্টায় থাকেন। ফলে তাঁদের মধ্যে ভালো নেতার গুণাবলি গড়ে ওঠে। আবার দৃষ্টিনন্দন চেহারার নেতাদের সাফল্যের হার সন্তোষজনক নয়। মোটামুটি সব স্থান ও কাল নির্বিশেষে এ কথা সত্য। ইতিহাস ঘেঁটে গবেষকরা এ কথার সত্যতা পেয়েছেন। সম্প্রতি গবেষকরা এর কারণও খুঁজে পেয়েছেন বলে দাবি করেছেন।
হার্ভার্ড বিজনেস রিভিউ নামের সাময়িকীতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে গবেষকরা এ কথা জানিয়েছেন। যুক্তরাজ্যের অ্যাস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. কার্ল সিনিয়র জানিয়েছেন, লম্বাটে মুখাকৃতির মানুষের চেহারা দেখতে ভালো হয়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, লম্বাটে আকৃতির মুখের মানুষ বেশির ভাগ মানুষের চোখেই দেখতে সুন্দর। এ ছাড়া এই ধরনের মানুষের সামাজিক জীবন পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, পরিবার ও সমাজে তাঁদের অবস্থান বেশ ভালো ও সুবিধাজনক। ফলে তাঁদের মধ্যে নেতৃত্বের একটি সহজাত বোধ জন্ম নেয় এবং তা চেহারায় প্রকাশ পায়। আর সাধারণ লোকজন এমন বৈশিষ্ট্যের মানুষকেই মনে করে বেশি পরিচ্ছন্ন ও বিশ্বাসযোগ্য।
অন্যদিকে যাঁদের চেহারা লম্বাটে না হয়ে গোল বা অন্য আকারের হয়, সাধারণ মানুষের কাছে তাঁদের চেহারা তেমন একটা পছন্দনীয় নয়। এ ধরনের মানুষ বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই সমাজে একটু পিছিয়ে থাকে। মানুষও সহজে তাঁদের ভোট দিতে চায় না। তাই এমন চেহারার মানুষের প্রথম থেকেই বড় কয়েকটি ঘাটতি থেকে যায়। প্রতিযোগিতায় ‘সুন্দর’ চেহারার প্রার্থীদের চেয়ে তাঁরা শুরুতেই পেছনে পড়ে যান। আর এ ঘাটতি পুষিয়ে নিতে ‘অসুন্দর’ চেহারার নেতারা উঠে-পড়ে লাগেন। মানুষের মনে বিশ্বাসযোগ্য একটি অবস্থান তৈরি করতে তাঁরা সব সময় সচেষ্ট থাকেন। এতে তাঁরা ভালো ভালো কিছু পদক্ষেপ নেন। একসময় তাঁরা মানুষের কাছে ভালো ও সফল নেতা হয়ে ওঠেন। খারাপ চেহারার নেতারা ভালো ও সফল হন_এ ব্যাপারটিই এখন উল্টো করে দেখলে অর্থ দাঁড়াচ্ছে_ভালো নেতাদের চেহারা দেখতে বেশ খারাপ হয়।
গবেষকরা জানিয়েছেন, দেখতে সুন্দর ও অসুন্দর_উভয় ধরনের ব্যক্তিদের একেকটি দলের সিইও হিসেবে নির্বাচন করে ৪২টি দলকে বাজারে কয়েকটি গাড়ি বিক্রির দায়িত্ব দেওয়া হয়। পরে নিয়মিতভাবে তাঁদের পর্যবেক্ষণ করা হয়। এতে দেখা যায়, খারাপ চেহারার সিইওরা নিজেদের এ ঘাটতি পুষিয়ে নিতে ভালো চেহারার সিইওদের চেয়ে অনেক বেশি সময় ধরে আন্তরিকতার সঙ্গে পরিশ্রম করছেন। দেখা গেছে, তাঁদের সাফল্যের হারও সুন্দর নেতাদের তুলনায় গড়ে ২০ শতাংশ বেশি। এসব ফল ও প্রাসঙ্গিক আরো কিছু গবেষণার সূত্র ধরে গবেষকরা এ বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। সূত্র :  অনলাইন।

এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

জানেন নাকি কম্পিউটারের ইতিহাস???
কম্পিউটারের প্রথম প্রজন্মের কিছু কম্পিউটার অবস্থা দেখুন
হাসিই শ্রেষ্ঠ ওষুধ
এখন যে কোন পিসিতে স্কীন সট video capture করা যাবে।
নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থাপনায় প্রযুক্তির ব্যবহার
সব ধরনের ইংলিশ,কলকাতা বাংলা ও হিন্দি মুভি
সেলফি এবং ভিডিও করতে গিয়ে বিধ্বস্ত হয় ক্রিকেট সাকিববাহী হেলিকপ্টারটি। ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান সাকিব (স...

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

Nazrul

Nazrul

Md. Nazrul Islam Bsc. DUET (Electrical) (Diploma Gutter BAFA) (Mashinist German TTC) Businessman

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/research/nazrul/14165

মন্তব্য করুন