«

»

সাম্প্রতিক হ্যাকিং এর ঘটনার সুফল

কথা বলার অধিকারকে আটকে রাখা যায় না। সাম্প্রতিক কালে ব্লাক হ্যাট হ্যাকার, বাংলাদেশ সাইবার আর্মিসহ বেশ কিছু হ্যাকার গ্রুপের ডাকে ভারতের বিরুদ্ধে সাইবার আক্রমনের ঘটনাকে অনেকে অনেকভাবে ব্যাখ্যা করেছে। অনেকে এটাকে আক্রমণ এবং অনেকে এটাকে যুদ্ধও বলেছেন। এদেশের রাজনীতিবিধগণ এটাকে অপরাধ বলছে।

একটা সময় ছিল যখন মানুষ শিক্ষিত হওয়া এবং শিক্ষিত লোককে ভয় পেতেন। এখন তথ্যপ্রযুক্তিতে জানা মানুষকে সরকারের অনেক অংশই ভয় পায়। আরো কিছু ভয় আছে তাদের। মূলতঃ গণতান্ত্রিক এ দেশে রাজনীতিবিধদের সবচেয়ে বড় ভয় তাদের জন সমর্থণ কমে যাওয়া এবং যে সব দেশের প্রভাবে এ দেশের রাজনীতি প্রভাবিত হয় তাদের কুনজরে না পরা।

যাই হোক সাম্পতিক ভারতীয় ওয়েবসাইটগুলোতে একসাথে আক্রোমনের ফলে যে সব বিষয় সবচেয়ে ভাল মনে হয়েছে তা নিচে আলোচনা করলাম।

বাংলাদেশের সুফলঃ

১. বাংলাদেশের প্রতি ভারতের বৈরী আচরণ এদেশের রাজনীতি ও মিডিয়ায় (টেলিভিশন ও পত্রিকা) তেমন প্রভাব পরে নাই কারন এখানে রাজনৈতিক দল (সরকারী ও বিরোধী দল) গুলোর তেমন স্বার্থ সংশ্লিস্টতা ছিল না। এদেশের সাধারন মানুষ এবং তরুন সমাজ বিষয়টিকে মেনে নিতে পারে নাই। বিশেষ করে অনলাইন মিডিয়ার মেধাবী ছেলে মেয়েদের মনে বড় ধরনের আঘাত হানে। এখানে একটি জাতীয়তাবোধ ও দেশের মানুষের প্রতি ভালবাসার বিহিঃপ্রকাশ দেখা যায়।

২. ভারতের ওয়েবসাইটগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নষ্ট করে সেখানে বাংলাদেশের প্রতি ভারতের বৈরী আচরণের ছবি, ভিডিও চিত্র দেওয়া হয়। এতে করে ভারতের সাধারন মানুষসহ বিশ্বের মানুষ এই অমানবিকতার বিষয়টি জানতে পারে। বিশেষ করে ভারতীয় টিভি চ্যানেলগুলোও গুরুত্বের সাথে খবর প্রকাশ করে। এতে করে বাংলাদেশের প্রতি অমানবিক আচরণ সম্পর্কে ভারতসহ বিশ্বের অনেকেই জানতো পারলো।

৩. প্রযুক্তিগত বেশ কিছু উপকারিতা পেয়েছে এ দেশের ছেলেরা। অনেক দেশেরই ওয়েব নিরাপত্তা ও হ্যাকিং এর উপরে পড়ালেখার ব্যবস্থা থাকলেও এদেশে তা নেই। এদেশের ওয়েবসাইটগুলো যারা পরিচালনা করছেন তারাও তাদের ওয়েবসাইটের নিরাপত্তার বেপারে সচেতন হয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশের হ্যাকিং গ্রুপ ও ফ্যান পেজের ৮০ হাজারেরও বেশি ব্যবহারকারী যাদের বেশিভাগই নিরাপত্তা বিষয়ে দক্ষ না তারাও নিজেদের ওয়েব একাউন্ট এবং ওয়েবসাইটগুলোর নিরাপত্তার বেপারে সচেতন হচ্ছে, শিখছে হ্যাকিং কলা কৌশল। যে শিক্ষাটি অনেক টাকার বিনিময়েও পাওয়া যায় না তা অনেক সহজেই শিখা যাচ্ছে। ভবিষ্যতে ওয়েব নিরাপত্তার জন্য বিদেশি কলাকৌশলী দরকার হবে না, এদেশের মেধাবী হ্যাকাররাই এদেশের গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে পারবে বলে আশা করা যায়।

৪. এদেশে কিছু তরুন মেধা আছে এবং তারা একত্রিতভাবে কাজ করতে জানে- এটা বিশ্ব জানলো।

ভারতের সুফলঃ

১. শুধু যে এই হ্যাকিং এর ঘটনায় বাংলাদেশ একাই সুবিধা লাভ করেছে তা নয়। ভারতের যে সব সরকারী ও বেসরকারী ওয়েব আক্রান্ত হয়েছে তারা তাদের সিস্টেমকে ঠিক করার কাজে ব্যস্ত। অদক্ষ লোক দিয়ে কাজ করালে যে আক্রমণ সহ্য করা যায় না তা তারা এত দিনে বুঝে গেছে। তারা অনেকেই সারভার পরিবর্তন করেছে এবং অনেক ওয়েবসাইটই আক্রমনের ভয়ে বন্ধ রাখা আছে।

২. ভারতের সাধারনজনগণও বাংলাদেশের প্রতি তাদের অমানবিক আচরণের বেপারটি ভালভাবে জানতে পেরেছে। আশা করা যায় ভারতের জনগণ এদেশের সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বেপারটি উপলবদ্ধি করে ফেলেছে।

৩. সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টি যে গুরুত্বপূর্ণ তা তারা জানতে পেরেছে। তাদের ওয়েব যে হুমকির মুখে পরেছে- তা জানিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। তাই তারা নিরাপত্তার বেপারে সচেতন হচ্ছে।

পূর্বে প্রকাশিত টিউটো হোস্ট ব্লগে


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

এবার চিনেন ব্রাউজাদের বস/গুরুকে
এখন থেকে আপনার ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক হবে না।
ডাউনলোড করে নিন হ্যাকিং সম্বন্ধিয় বাংলা ই-বুক “হ্যাকোলজি”
!!!! ADOBE কে Hack করুন সহজে এবং আজীবন ব্যাবহার করুন License Key ছাড়াই ( ফটোশপ, ফ্লাশ,ড্রিময়েভার ...
জিপি ফ্রী নেট দিয়ে পিসিতে আনলিমিটেড ডাউনলোড এবং ব্রাউজিং করুন ১০০%কাজ করবে।
সব ধরনের ইংলিশ,কলকাতা বাংলা ও হিন্দি মুভি
আপনি কিভাবে ফ্রিলান্সিং শুরু করবেন? 200$-400$

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

মাহবুব টিউটো

বিজ্ঞান প্রযুক্তি, টিউটোরিয়ালবিডি, টেকটিউনসসহ বেশ কিছু বাংলাব্লগের লেখক । ১৯৮৩ সালে জন্ম । পড়ালেখার করেন ঢাকায়। ২০০৫ সালে স্নাতক পাস করেন। তিনি বেশ কিছু বাংলা ও ইংরেজী ব্লগের সাথে জরিত আছেন। বর্তমানে তিনি কনকর্ডগ্রুপে কর্মরত আছেন এবং ওয়েব ডেভলপমেন্ট ও ওয়েবহোস্টিং প্রভাইডার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ফেসবুকে আর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/hacking-antihacking/mahbubpalash/20913

1 comment

1 ping

  1. বদরুদ্দোজা মাহমুদ তুহীন

    ভালো পোস্ট। যদিও সাইবার যুদ্ধ না থামায় এখনো সুফলের মাত্রাটি পুরোপুরি বোঝা যাচ্ছে না… আপনার দেয়া বিষয়গুলোর সাথে আরো অনেক বিষয় যুক্ত হতে পারে।
    আবারো শুভেচ্ছা… 🙂

মন্তব্য করুন