«

»

ম্যাজিকের জগৎ রহস্যের জগৎ। অসম্ভব, বিস্ময়কর দৃশ্য দেখানোই হল ম্যাজিক। এসো নতুন কিছু ম্যাজিক শিখি (পর্ব ১ )

 

ম্যাজিকের জগৎ রহস্যের জগৎ। অসম্ভব, বিস্ময়কর দৃশ্য দেখানোই হল ম্যাজিক। প্রত্যেক মানুষের-ই কমবেশি ম্যাজিকের কৌশল জানতে ইচ্ছা করে, ইচ্ছা করে অলস সময়য়ের মাঝে মধ্যে দু-একটা ম্যাজিক দেখান। তাছাড়া ছোটখাট পারিবারিক অনুষ্ঠান বা যে কোন অনুষ্ঠানে আত্মীয় স্বজন বা বন্ধু মহলে জনপ্রিয়তা পাওয়া যায় যদি কিছু ম্যাজিক জানা যায়। যারা স্কুল-কলেজে পড়ে বা যে কোন ব্যক্তি যার একটু রহস্যময় ব্যক্তি হওয়ার ইচ্ছা জাগে । অনেক গুলো পর্ব নিয়ে সাজানো আমার এই ম্যাজিক শিক্ষা  আসর আশা করি সবার ভালো লাগবে । চলুন আগে জেনে নেই কি ভাবে ম্যাজিক শিখা যায়  🙂

প্রদর্শন ভঙ্গি (Showmanship) ম্যাজিকের সবচেয়ে বড় দিক। কিভাবে ম্যাজিকটি প্রদর্শন করলে সুন্দর হবে আকর্ষনীয় হবে, কিভাবে ম্যাজিকটি আপনি উপস্থাপন করবে তাই প্রদর্শন ভঙ্গি। একই ম্যাজিক বিভিন্ন ভাবে প্রদর্শন করা যায়। আপনার প্রদর্শন ভঙ্গি আপনার মেধা ও শিল্পগুণের পরিচয় বহন করবে। তাই ম্যাজিকের একটি মুখ্য বিষয় “প্রদর্শন ভঙ্গি”- এর সঙ্গে আর একটি মুখ্য বিষয় “অভ্যাস” জড়িত। নতুন ম্যাজিকগুলো ভালভাবে অভ্যাস করলেই প্রদর্শন ভঙ্গি ভাল হবে। প্রথম শিক্ষার্থীর জন্য ম্যাজিক শেখার মূল মন্ত্র-ই ‘অভ্যাস’।

ছোট বেলায় আমিও উড়ার চেষ্টা করতাম কিন্তু আমি পারি নাই , মানুষ কি উড়তে পারে ???? একজন পারে বলুন ত কে ??

বিখ্যাত যাদুশিল্পী David Copperfield

SIR David Copperfield বিখ্যাত যাদুর গুলোর মধ্য থেকে কয়েকটি ইউটিউব থেকে

আরেকটি হল

David Copperfield – Vanishing the Statue of Liberty

এই ম্যাজিক টা দেখে আমি রীতিমতো অবাক কি ভাবে David Copperfield উড়তে পারেন !!!!

David Copperfield – Flying (Levitation)

লিংক গুলো তে CLICK করলে ম্যাজিক গুলো দেখতে পাবেন ইউটিউব থেকে

ম্যাজিক দেখাতে গেলে দ্রুত কাজ সমাধান করাও শিখতে হবে। উপস্তিত বুদ্ধি থাকতে হবে। অর্থাৎ ম্যাজিক দেখাতে চালাক লোক হতে হয় তা সবাই মানে। এটি বোকা লোকের কলা নয়, এটি বিজ্ঞ লোকের কলা বা শিল্প। তাইতো WIZARD উৎপত্তি হয়েছে এভাবে “WISE MENS’ ART” বা সংক্ষেপে WIZARD (যাদুকর) আবার MAGIC কথাটির উৎপত্তিও একইভাবে MAGI কথাটির অর্থ চালাক বা বুদ্ধিমান লোক (পুরোহিত বা বিজ্ঞমন্ডলী)। সুতরাং MAGIC মানে যে “বুদ্ধিমান লোকের কাজ” । তেমনি বুদ্ধির সঙ্গে কিছু অদ্ভুত বস’ যেমন আঁকাবাঁকা অচেনা গাছের ডাল, হরিণের শিং, হাড়-হাড্ডি থাকলে ম্যাজিকের প্রয়োজনীয় একটা দিক “ম্যাজিক দেখানোর পরিবেশ” সৃষ্টি হয়। ম্যাজিক দেখানোর আগে পরিবেশ সৃষ্টি করে নিতে হবে তাহলে খুব ছোট ম্যাজিকও দর্শকের নিকট মহাবিস্ময় সৃষ্টি করবে। ম্যাজিক দেখানোর আগে পরিবেশ সৃষ্টি যেমন করতে হবে তেমনি পরিবেশ অনুভবও করতে হবে। যখন দু-একজন কে ম্যাজিক দেখাবেন তখন তার মন-মানসিকতা বিচার করে ম্যাজিক বেছে বেছে দেখাবেন । আর একটা জিনিস লক্ষ্য রাখবেন, যেসব ম্যাজিক দেখাতে গেলে সহকারী বা Confederate দরকার তারাও যেন চালাক চতুর হয়। তাছাড়া যদি কখনও দেখেন আপনার জানা কোন ম্যাজিক কোন পেশাদার যাদুকর দেখাচ্ছেন তাহলে তা ধরতে যাবেন না বা কখনই অন্য কোন যাদুকরের সম্মান নষ্ট না হয় । চেষ্টা করবেন যাদুকরটি যেন আরো ভালভাবে ম্যাজিক দেখাতে পারেন । ম্যাজিকের উদ্দেশ-ই হল “নির্মল আনন্দ” দেয়া।

আজ আমি আপনাদের কয়েকটি ম্যাজিক শিখাবো ১০ পর্বের এই ম্যাজিক এর মধ্য এটি ১ম পর্ব 🙂 তবে স্যার David Copperfield এর মতো ম্যাজিক না দেখাতে পারলেও । আমার দেখানো ম্যাজিক গুলো অনেক মজার হবে 🙂

যেমন আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো ২ টা ম্যাজিক । আশা করি সবার খুব ভালো লাগবে ।

ওজন দেখে তাস বলা

যাদুকর তাসের খেলা দেখান দুই রকমের

যথাঃ ১. সাধারণ তাসের ম্যাজিক (হস্ত- কৌশলের প্রয়োজন পড়ে)

এবং ২. বিশেষ ভাবে তৈরি তাসের ম্যাজিক।

ওজন দেখে তাসের সংখ্যা বলার এই ম্যাজিকটি সাধারণ তাসের ম্যাজিক অর্থাৎ শুধু মাত্র এক সেট তাস হলেই ম্যাজিক দেখান শুরু করা যায়।

কোন দর্শককে অনুরোধ করুন এক প্যাকেট তাস হতে ১০ এর বেশি যতগুলো ইচ্ছা তাস নিতে। তারপর আপনাকে না জানিয়ে তাসগুলো গুনতে বলুন । যে সংখ্যক তাস হল তার একক ও দশক মনে মনে যোগ করতে বলুন । যোগফলের সমান সংখ্যক তাস, দর্শকের নেয়া তাস হতে বাদ দিতে বলুন। এবার আপনি দর্শকের অবশিষ্ট তাস হাতে নিয়েই বলে দিতে পারবেন তাতে কতগুলো তাস আছে।

একটা উদহারণ নেওয়া যাক। ধরা যাক আপনাকে না দেখিয়ে দর্শকটি ২১টি তাস তুলে নিল। এবার সংখ্যাটির একক ও দর্শক যোগ করলে (২ + ১) = ৩ হয়। আপনার কথামত দর্শকটি ৩টি তাস তার নেয়া ২১টি তাস হতে বাদ দিল। তহলে তাঁর হাতে থাকল ২১ – ৩ = ১৮ টি তাস। আপনি অবশিষ্ট তাসের গোছা হাতে নিয়ে অনায়াসে বলে দিতে পারবেন ১৮টি তাস আছে। দর্শক খুব অবাক হবে। শুধু মাত্র তাসের গোছার ওজন দেখে তাসের সংখ্যা নির্ভূল ভাবে বলে দেওয়া ম্যাজিক নয়ত কি?

কি ভাবে ????

এই ম্যাজিকটি কৌশল খুব সোজা। ম্যাজিক দেখানোর আগে আপনাকে শুধু দেখে নিতে হবে ৯টি তাস কতখানি মোটা, ১৮টি তাস কতখানি মোটা, তেমনি ২৭ ৪৬ ও ৪৫ টি তাস কেমন মোটা। এটুকুই তোমাকে একটু অভ্যাস করতে হবে তাহলেই এই ম্যাজিক দেখানো যাবে। কারণ ইচ্ছামত যত তাসই দর্শক গ্রহণ করুক, তার একক ও দশকের যোগফলের সংখ্যক তাস রেখে দিলে তাকে “৯, ১৮, ২৭, ৩৬, ৫৪” (৯ এর ঘরের নামতা?)- এর যে কোন একটির সংখ্যক তাস অবশ্যই থাকবে। আরো দু’একটি উদাহরণ দেয়া যাক ”
১১ – ২ (১ + ১) = ৯
১৪ – ৫ (১ + ৪) = ৯
২০ – ২ (১ + ০) = ১৮
৩১ – ৪ (১ + ১) = ২৭
৪২ – ৬ (১ + ২) = ২৬
৫২ – ৭ (১ + ২) = ৪৫

কেমন লাগলো এই ম্যাজিকটি ?????? জানাতে ভুলবেন না কিন্তু 🙂

অংকের ছোট্ট ম্যাজিক

এই অংকের ম্যাজিকটি ছোট্ট হলেও কম আশ্চর্যজনক নয়।
প্রথমে দর্শককে অনুরোধ করুন পাশাপাশি তিনটি একটি রকম অংক লিখতে (যেমন, ১১১, ২২২ প্রভৃতি)। তারপর তাকে ঐ অংক তিনটির যোগফল দিয়ে ঐ তিন অংকের নির্বাচিত সংখ্যাকে ভাগ করতে বলুন । আবার আপনি বলুন “এই অংকের ম্যাজিকে আমি কিছুই শুনিনি বা দেখিনি। আপনি ইচ্ছামত তিনটি একটি রকম সংখ্যা লিখে, সংখ্যা তিনটির যোগফল দিয়ে ভাগ কররেছেন। তবুও আমি যাদুর সাহায্যে বলে দিতে পরি তার উত্তর। (এবার আপনি এমন ভাব করেন যেন কোন জিনের থেকে উত্তরটি শুনে নিচ্ছেন ) ব্যাস্‌ বলে দিন ৩৭। আশ্চর্য্য“ রেজল্ট সটিক।

কি ভাবে ????

আসলে সে একই রকম তিন অংশের যে সংখ্যাটি লিখুক না কেন উত্তর সর্বদা ৩৭ হবেই। যেমন, ৪৪৪ কে ১২ (৪ + ৪ + ৪) দ্বারা ভাগ করলে ৩৭ হয়।
এর উত্তরটা সব সময় এক হয়, তাই একই দর্শককে দুবার দেখান যায় না। তবে এর উত্তরটা অন্যভাবেও প্রকাশ করা যায়। একটা ছোট কাগজে লেবুর রস দিয়ে ৩৭ লিখে রাখলে শুকলে কিছুই বোঝা যায় না। উত্তর বলার আগে সবার সমানে পানিতে কাগজটা ভিজালেই ৩৭ ফুটে উঠবে। (সংগ্রহ)

আজ আমি আপনাদের সাথে অনেক গুলো ম্যাজিক শেয়ার করলাম , শিখালাম যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তবে কেমন হয়েছে জানাবেন কিন্তু 🙂 না জানালে বুজবো কি ভাবে ? সামনে আরো ম্যাজিক দেখাবো কিনা ?????? আপনারা বলুন সামনে কি আরো ম্যাজিক নিয়ে আসবো ???

তবে দেরি কেন নতুন কিছু ম্যাজিক শিখি টেকটুইটস এ আসুন হারিয়ে যাই ম্যাজিক এর দুনিয়াতে 🙂

সবাই ভালো থাকবেন আল্লাহ্‌ হাফেজ


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

ঈশ্বরের কণা আবিষ্কারের দ্বার প্রান্তে
ফেসবুক থেকে নিয়মিত পান মসজিদ আল হারাম এবং মসজিদ এ নভবি এর সালাত(নামাজ) রেকরডিংস !!
!!! পিতা-মাতার সাথে সদ্ব্যবহার !!! সকলে একটু পড়ুন !!!
অসাধারণ একটি প্রশ্ন থেকে উত্তর পাবার বাংলাদেশী সাইট!
সব ধরনের ইংলিশ,কলকাতা বাংলা ও হিন্দি মুভি
Risingtraffic এর মাধ্যমে আয় করুন ১০০% নিশ্চিন্তে। [না দেখলে ১০০০% মিস]
কালি লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমঃ হ্যাকিং ও পেনেট্রেশন টেস্টিং এর আদ্যোপান্ত

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

MSPOLASH

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/discussion/mspolash/5134

13 comments

Skip to comment form

  1. Rubel Orion

    হারিয়ে গেলাম ম্যাজিকের দুনিয়ায়! 😛

    1. MSPOLASH

      হারিয়ে যাবার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ 😛

  2. হাসান

    মজার তো। ধন্যবাদ।

    1. MSPOLASH

      ধন্যবাদ 😛

  3. baiozid khan

    vai valo lagsa aro arocom magic chi……….

    1. MSPOLASH

      হুম আরও ম্যাজিক দেখাবো 😛

  4. MNUWORLD

    আপনার জাদু দেখে এখন আমার জাদুঘর হতে ইচ্ছা করছে। ধন্যবাদ।

  5. MSPOLASH

    ভাই আমি জাদু পারি না ম্যাজিক পারি 😛

  6. ঐ ছেলেটি
    jakir

    আরে এত সুন্দর সুন্দর যাদু দেখতে আমি এত দেরি করলাম? নাহ! এটা ঠিক হয় নি।

  7. MSPOLASH

    JAKIR ভাই আপনি কোন দেরি করেন নাই :p

  8. bright space

    জীবন টাই যেখানে ম্যাজিকে পূর্ন , , সেখানে……।
    হুম ভালোই লাগ্‌লো। ধন্যবাদ আপনাকে

  9. MSPOLASH

    হুম ভাই মানুষ এর জীবন টাই ম্যাজিকে পূর্ন 🙂

    দুনিয়াতে মানুষ আসে আনন্দের সাথে সবাই কে জানিয়ে আর বিদায় নেই সবাই কে না জানিয়ে 🙂
    এর চেয়ে বড় ম্যাজিক আছে কি ???? 🙂

  10. জি এম পারভেজ;-)

    ম্যাজিক গুলো ভাল লাগল । তাসের ম্যাজিকটা ভাল হয়েছে । এই পোষ্টটা টেকটিউনসে দেখেছিলাম । ধন্যবাদ জানানোর কথা ছিল । সেখানে তো মোবাইল থেকে কমেন্ট লেখার উপায় নাই । আজকে এখানে দেখে সুযোগ হাতছাড়া করলাম না । যা হোক , অনেক ধন্যবাদ আপনাকে ।

মন্তব্য করুন