«

»

অনলাইন এ টাকা আয়ের সাইট থেকে প্রতারিত হচ্ছে বাংলাদেশ

বেশ কিছুদিন থেকেই কয়েকটা বাংলাদেশি কম্পানি গড়ে উঠেছে সাধারন জনগন ও ছাত্র/ছাত্রিদের প্রতারণা করার জন্য।

তাদের মধ্যে অন্যতম কয়েকটা সাইট হলঃ

১/ স্কাইলান্স্যার (skylancers.com)

২/ ডোলান্সার (Dolancer.com)

৩/ অনলাইন অ্যাড ক্লিক (Onlineaddclick.net)

৩/ অনলাইন নেট টু ওয়ার্ক (Onlinenet2work.com)

সহ আরও অনেক এবং এই সকল কোম্পানি/সাইট গুলো সাধারন জনগণ ও ছাত্র/ছাত্রীদের কে লাখ লাখ টাকার সপ্ন দেখিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা। এক্ষেত্রে সাধারন জনগণ ও ছাত্র/ছাত্রীদের মুল্যবান সময় সহ তাদের সুগঠিত মেধার অসৎ ব্যবহার করছে। এবং তাদের প্রয়োজন (পকেট ভর্তি) শেষ হওয়ার পরেই সবাইকে ধোকা দিয়ে চলে যাচ্ছে এবং সর্ব শেষ যে ধোকা দিচ্ছে সেই কোম্পানির নাম হচ্ছে অনলাইনঅ্যাডক্লিক (Onlineaddclick.net)

শুধু অনলাইন অ্যাড ক্লিক নতুন ধোকা দেয়ার কোম্পানি নয় এর আগেও বেশ কিছু কোম্পানি কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে তাদের কোম্পানি গুটিয়ে নিয়েছে।

যেমনঃ

১/ ইউনিপেটুইয়উ

২/ ক্লাব এস্টেরিয়া

৩/  স্পিক এশিয়া।

সহ আরোও অনেক…

কিন্তু এর পরেও হুশ হচ্ছে না সাধারন জনগণের!

এখন সবাই (মানে যারা অনলাইন অ্যাড ক্লিক এর সদস্য) তারা আমাকে আজেবাজে মন্তব্যের মাঝে জানাবেন যেঃ সার্ভার ঠিক আছে আগের চেয়ে অনেক ফাস্ট **** এখন সার্ভার ওপেন আছে। সমস্যা দূর করার জন্য চলে এতদিন বন্ধ ছিল ইত্যাদি ইত্যাদি…

কিন্তু আপনারা সবাই একবার ভেবে দেখেছেন কি? যে আপনাদের একাউন্ট এ ১০০, ১০০০, ৪০০০, ৫০০ অথবা তারোও বেশি এবং কম? এই টাকা গুলো এখন আপনাদের কোম্পানি কোথা থেকে ফেরত দেবে? আপনাদের উত্তর হতে পারেঃ কেন আমি আরেকজনের কাছে ট্র্যান্সফার করে টাকা নিয়ে নেবো। কিন্তু আমি আপনাদের বলবো আপনারা আবারোও ভুল করছেন কেনোনা এখন আপনাদের সেই টাকা কেউ কিনে নেবে না কারন হচ্ছে এখন অ্যাডক্লিক এর নতুন সদস্য জয়েন করা বন্ধ আছে তাই আপনার টাকা কেউ কিনে নেবে না । আরোও একটি আইডিয়া আপনাদের মাথায় আসতে পারেঃ যে ব্যাংক অথবা অনলাইন প্রেমেন্ট প্রসেসর এর মাধ্যমে নেব? কিন্তু মিয়া ভাই একবার চেষ্টা করেই দেখুন পান কি না?

এমএলএম ব্যবসা যেভাবে হয়ঃ

মনে করুন আপনি একজন সদস্য এমএলএম কম্পানির। এক জন কে জয়েন করালে পাবেন কমিশন হিসেবে ১০ টাকা এবং দুইজন জয়েন করাইলে পাবেন আরোও ১০ টাকা। এবং অই জন এর জয়েন শেষ হলে আবারো ম্যাচিং হিসেবে পাবেন ১০ টাকা। তার মানে হলঃ আপনি কোম্পানি কে দিলেন ১০০ এবং দুইজন জয়েন করিয়ে আবারো দিলেন ২০০ তাহলে কোম্পানি পেলো ৩০০ এবং আপনাকে কমিশন ৩০ তাহলে কোম্পানির রইলো ২৭০ টাকা এভাবেই আপনি যদি কয়েক লেভেল নিয়ে হিসেব করেন তাহলে দেখবেন যে এক সময় আপনি কোম্পানিকে হাতে অথবা ব্যাংক এর মাধ্যমে কোন টাকায় দিচ্ছেন না কারন আপনার একাউন্ট এ ক্লিক, জয়েনিং এবং ম্যাচিং বোনাস এর মাধ্যমেই অনেক টাকা পেয়ে গেছেন এবং এই টাকা গুলো দিয়েই আপনি নতুন সদস্যদের জয়েন করাচ্ছেন তার মানে দাঁড়ায় যে কোম্পানির তখন কোন লাভ থাকে না সুধু লস আর লস তাই সেই সময় কোম্পানি গুটিয়ে (মাইক সাইটা ঘুমাইতে যায়) কারন তাদের যাত্রা সেখানেই শেষ হয়।

হয়তো আপনাদের মনে প্রস্ন জাগতে পারে যে প্রতিদিন যে অ্যাডগুলো দেয়া থাকে সেই অ্যাডগুলো থেকেই তো কোম্পানি অনেক টাকা পায় সেগুলো থেকেই হয়তো আমাদের পে করে। কিন্তু এক্তু ভাবুন অ্যাড এর জন্য আপনাকে প্রতিদিন প্রতিটি অ্যাডের জন্য পে করা হয় ০.১৫ কিন্তু ভেবেই দেখুন এই একটা পিটিসি সাইটে অ্যাড দেখানোর জন্য কনো প্রতিষ্ঠান কেন প্রতি ৩০ সেকেন্ড ভিজিট এর জন্য ০.১৫ দেবে? যদি ইউনিক ভিজিটর হয় তাহলে আলাদা কথা। গুগল এর কোম্পানি গুগল এর মত এত বড় কোম্পানির কি হবে? তারা যে অ্যাডসেন্স এর সাহায্য দুনিয়ার সকল ওয়েবসাইট এ অ্যাড দেই এবং সেই অ্যাড এ ক্লিক করলেই টাকা কাউন্ট হয়না যদি সেটা ইউনিক নান হয়।

তাই আমি আপনাদের বলি এই সব কোম্পানিতে দে যে অ্যাডগুলো দেয়া হয় তা সবিই ফেক যা এমএলএম কোম্পানি গুলো নিজেরাই অ্যাড করে কোন প্রতিষ্ঠানের অনুমতি ছাড়াই তারা আসলে এগুলো সবার চোখে ঠিকভাবে ধরে না।

এইতো বেশ কয়েকদিন আগে একজন মুকচুট (বেশি বুঝে ও মিথ্যে কথা বলে) এসে আমার পাশে বসে তার ল্যাপটপ থেকে ডোলান্সার এর অ্যাড এ ক্লিক করছিল সে তাকে আমি সম্মান করি বলেই এই ব্যপারে কিছু বলিনি সুধুই দেখছিলাম সে কি করে। কিচ্ছু খনের মধ্যেই একটা অ্যাড আসলো এবং সেই অ্যাড এর পাতায় যা লেখা ছিল তা দেখে আমি তাকে বললাম ভাইয়া অ্যাড তো অনেক ক্লিক করেছেন কিন্তু এই লেখা কি কোনোদিন পড়ে দেখেছেন?

যা লিখা ছিলঃ (ইংরেজিতে ছিল আমি বাংলা করলাম) ” প্রিয় ভিজিটর আপনাকে আমাদের পেজে স্বাগতম, তবে ডোলান্সার এর সদস্যদের জন্য এই পাতাটি দেখার অনুমতি নেই। ডোলান্সার এর সাথে আমাদের কনো সম্পর্ক নেই এবং আমাদের ওয়েব সাইটটি আমাদের অনুমতি ছাড়াই ডোলান্সার তাদের সদস্য দের অ্যাড হিসেবে দেখানো হচ্ছে) আমরা ডোলান্সার এর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি এবং তাদের বলছি তারা যেন এই আমাদের লিঙ্ক যত দ্রুত সম্ভব মুছে দেই। যদি আপনি আমাদের সাথে ব্যবসা করতে চান তাহলে সবসময় স্বাগতম।

এমএলএম ব্যবসা করে কেউ অনেক বড়লোক হয়ে যায় এবং অনেকেই হয়ে যায় নিঃস্ব তাই এই ধরনের চিট ব্যবসা থেকে সবাই বিরত থাকুন এবং নিজে চিন্তা থেকে মুক্ত থাকুন এবং অন্যকেউ চিন্তা মুক্ত রাখুন। আমি নিজেই দেখেছি অনেকি তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিশ বিক্রয় করে এমএলএম ব্যবসা করতে গিয়ে ধরা খেয়েছেন।

আমার ব্লগে স্বাগতম


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

AVG Antivirus এর ১০ বছরের লাইসেন্স নিন
"প্রযুক্তি ব্লগ" নামে প্রযুক্তি বিষয়ক নতুন বাংলা ব্লগ সাইটের যাত্রা শুরু
বাংলাদেশী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, যা বিশ্বব্যপী ব্যক্তি, গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়কে সংযুক্ত করেছে !
বাংলাদেশে প্রথমবারের মত শুরু হলআঙ্গুলের ছাপে ব্যাংকিং!!
আসছে আরো নতুন ১৪টি FM রেডিও, প্রচুর সংবাদ উপস্থাপক , উপস্থাপক , রিপোর্টার , রেডিও জকি শীঘ্রই নিয়োগ ...
পত্রিকা তৈরি করুন সংবাদ প্রচার করার জন্য (পর্ণো সাইটের জন্য নয়) ।
ওয়েবসাইট দেখা যাবে আরও সহজে

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

Amiraj.das

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/discussion/amiraj-das/23885

6 comments

Skip to comment form

  1. doporbela

    100% pure kotha koisen.

  2. Real Story

    comment ta ki link ta dawar jonno korlen?

  3. Real Story

    kobe j manuer bodhodoy hobe? r kobe j manus click baji bondho korbe..ALLAH eder hedayet den…amin.

  4. sejan

    সবই কি ভুয়া?

মন্তব্য করুন