«

»

shahnur025

তিন গোয়েন্দা- ছোটবেলার সাথী…..


তিন গয়েন্দার MOVIE DOWNLOAD


তিন গোয়েন্দার সাথে আমরা প্রায় সবাই পরিচিত। এটা এমন একটা সিরিজ যেটাকে একসময় না পড়লে আমাদের কারো দিন যেতে চাইতো না। আমিও একসময় এই সিরিজের অন্ধ ভক্ত ছিলাম। কিন্তু অনেকের মতোই আমিও রকিব হাসান লেখা বন্ধ করে দেবার পর তিন গোয়েন্দা পড়া বন্ধ করে দিলাম। শামসুদ্দিন নওয়াব আমাদের চাহিদা পূরণ করতে পারছিলেন না।

মনে পড়ে রকিব হাসানের সর্বশেষ বইটির কথা। সেটার নাম “হীরার কার্তুজ” ওই বইটির মাধ্যমেই তিনি পুরোপুরি-ই প্রমাণ করে গিয়েছিলেন যে তার সমকক্ষ হওয়া কারো পক্ষে সম্ভব নয়। মনে পড়ে প্রথম বইটির কথা। সেটাই আমার মতে সেরা বই তিন গোয়েন্দা সিরিজের।

এখনো কিছু বইয়ের প্রচ্ছদ দেখলে শিহরিত হই। কি জাদু ছিল রাকিব হাসানের হাতে! এখনো মাঝেমধ্যে সুযোগ পেলেই রহস্যের সমাধানে নেমে যাই তিন গোয়েন্দার সঙ্গে কল্পনার রাজ্যে।


পরিচিতি

তিন গোয়েন্দা সিরিজের বইগুলোর শুরুতেই একটা পরিচিতি দেয়া থাকে, যেটা নতুন পাঠকের জন্য সহায়িকার কাজ করে। সাধারণত পরিচিতিটা এভাবে দেয়া হয়:[৫]
হ্যাল্লো কিশোর বন্ধুরা
আমি কিশোর পাশা বলছি অ্যামিরিকার রকি বীচ থেকে। জায়গাটা লস অ্যাঞ্জেলসে, প্রশান্ত মহাসাগরের তীরে। হলিউড থেকে মাত্র কয়েকমাইল দূরে। যারা এখনও আমাদের পরিচয় জানো না, তাদের বলছি আমরা তিন বন্ধু একটা গোয়েন্দা সংস্থা খুলেছি। নাম
তিন গোয়েন্দা।
আমি বাঙালি, থাকি চাচা-চাচীর কাছে। দুই বন্ধুর একজনের নাম মুসা আমান। ব্যায়ামবীর, অ্যামিরিকার নিগ্রো, আরেকজন রবিন মিলফোর্ড, আইরিশ অ্যামিরিকান, বইয়ের পোকা।
একই ক্লাসে পড়ি আমরা।
পাশা স্যালভিজ ইয়ার্ডে লোহা-লক্কড়ের জঞ্জালের নিচে পুরোন এক মোবাইল হোম-এ আমাদের হেডকোয়ার্টার

প্রধান চরিত্রসমূহ(Leading Cherecter)

Tin Goyenda, as the name explains, is the tale of three teenage detectives. They are not only the investigators, but adventurers as well. Thrill, suspense and challenge is their main attraction.

The three young friends, Kishore Pasha, Musa Aman and Robin Milford formed the Tin Goyenda. Sometimes Georgina Parker (more commonly referred to as Jina) and her pet dog Ruffian (Rafi for short) accompany them. Tin Goyenda live in Rocky Beach, a small coastal town of California, USA. They are in the same class at Green Hills School, though their grade is not mentioned anywhere. That�s why every young reader imagines them as his/her classmate.

Kishore Pasha
Kishore Pasha, a Bangladeshi-American, is the leader of the team (Goyenda Prodhan). His parents died in a car accident when he was 7. His father’s name is Zahed Pasha. He has been living with his uncle Rashed Pasha and aunt Maria Pasha since his parents died in a car crash. Mr. Pasha owns a junk yard known as Pasha Salvage Yard. With curly black hair, dark, deep and sharp eyes reflecting the glow of his brilliance, Kishore Pasha has a habit of pinching his lower lip whenever he does some vital brainwork or is lost in a deep thought. His eyes don’t miss a single tiny thing and his photographic memory never allows him to forget that. He is a born actor, an electronic wizard and the locomotive of the Tin Goyenda as well. He has two dogs ‘Titu’ and ‘Bagha’ .

কিশোর পাশা
কিশোর পাশা তিন গোয়েন্দা সিরিজের প্রধান চরিত, গোয়েন্দা প্রধান। বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত। বাবা জাহেদ পাশা। মাত্র ৭ বছর বয়সে এক ঝড়ের রাতে গাড়ি দুর্ঘটনায় তার মা-বাবা দুজনেই মারা যান। চাচা রাশেদ পাশা ও চাচী মেরিয়ান পাশার (কিশোরদের ‘মেরি চাচি’) কাছেই সে মানুষ। চাচা রাশেদ পাশার একটি স্যালভিজ ইয়ার্ড আছে, নাম “পাশা স্যালভিজ ইয়ার্ড”। কিশোর পাশার কোঁকড়া চুল, গভীর কালো দুচোখে বুদ্ধির ঝিলিক! ক্ষুদ্র জিনিসও তার চোখ এড়ায় না। যে জিনিস একবার দেখে সেটা মনে থাকে দীর্ঘদিন। কিশোর পাশা একজন চমৎকার অভিনেতাও বটে। ছোটবেলায় একটি কমেডি সিরিযে একটা হাসির চরিত্র করেছিলো বলে এখনও সে বেশ লজ্জাবোধ করে। ইলেকট্রোনিক্সের কাজে সে বেশ পটু, তাই তাকে “ইলেক্ট্রোনিক্সের যাদুকর”ও বলা হয়। তার মুদ্রাদোষ হলো: গভীর চিন্তামগ্ন অবস্থায় সে ক্রমাগত নিচের ঠোঁটে চিমটি কাটতে থাকে। তাছাড়াও সময় নাহলে কখনোই কাউকে কোনো কিছু বলতে চায় না! কোনো বইতে তার ‘বাঘা’ এবং ‘টিটু’ নামে দুটি কুকুরের নামও পাওয়া যায়। “থ্রি ইনভেস্টিগেটরস”-এ কিশোর পাশার প্রতিসঙ্গী চরিত্র হলো জুপিটার জোনস

Musa Aman
Musa Aman, the second detective, is an Afro-American. His first passion is eating and that is why he falls victim of the experimental cooking of Nisan Jung Kim (the Vietnamese cook of Mr. Simon) who loves to cook unusual dishes every now and then. Having an athletic figure and strength, he is the muscle man of the team. Often he uses his head as a weapon to butt the belly of the enemy, especially when there is a need to clear his way. Musa Aman can fight any living thing but he is scared even to utter the name of ghosts. in utmost Excitement he sometimes utters the word ‘Khaichhe’ (Bengali: খাইছে) (though literally meaning eaten, here it means ‘Damn it!’). Often he provides the comic relief for the books. Musa lives with his parents: Mr. Rafat Aman, special effect technician in a film producing company. Musa hates to read books.

মুসা আমান
মুসা আমান তিন গোয়েন্দা সিরিজের দ্বিতীয় চরিত্র, গোয়েন্দা সহকারী। আফ্রিকান বংশোদ্ভূত। বাবা-মায়ের সাথে থাকে। বাবা রাফাত আমান হলিউডের বড় টেকনিশিয়ান এবং মা মিসেস আমান গৃহিনী। মুসাকে ঘরবাড়ি পরিষ্কার করা, লনের ঘাস ছাটা এসব কাজ প্রায়ই করতে হয়। নিয়মিত ব্যায়াম করে আর পেশিশক্তিতে সবল। প্রয়োজনে প্রচন্ড শক্ত মাথা দিয়ে শত্রুর পেটে আঘাত করতে তার জুড়ি নেই। তার মাঝে মাঝেই নানারকম বাতিক জাগে। কিছুদিন পর তা মিটে গেলে আরেকটা শখে মন চলে যায়। তার মুদ্রাদোষ হলো: কথায় কথায় “খাইছে” কিংবা “ইয়াল্লা” বলা। সে একটু ভোজনরসিকও বটে। কিছুটা ভীতু প্রকৃতির, ভূতে তার যত ভয়। তবে বিপদের মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি সাহসী হয়ে উঠে মুসা। মুসা মোটামুটির দক্ষতার সাথে বিমান চালাতেও পারে।[৫] তবে মুসা বই পড়তে অপছন্দ করে। “থ্রি ইনভেস্টিগেটরস”-এ মুসা আমানের প্রতিসঙ্গী চরিত্র হলো পীট ক্রেনশো (Pete Crenshaw)

Robin Milford
The ancestors of Robin Milford came to America from Ireland. He is the Book-worm (although Kishore reads a lot of books too). This bookworm, also known as the moving encyclopedia, is the researcher and documentation specialist of the team. He works part time in the Rocky Beach Library and the leading local music company. He collects valuable information related to the current case of Tin Goyenda. The first books of the series shows him to be a skinny and short boy, but later on he grows taller and becomes very efficient with the ladies. He is known as a hunk. Like Musa Aman, he also lives with his parents. His parents are journalists. Robin Milford is also said to be an expert mountain climber, though it is mentioned that he broke his limbs several times when climbing. Like all the other members of the group he is also expert in karate.

রবিন মিলফোর্ড
তিন গোয়েন্দার নথি গবেষক হিসেবে পরিচিত রবিন মিলফোর্ড। আয়ারল্যান্ডের বংশোদ্ভূত। বাবা মিস্টার মিলফোর্ড একজন সাংবাদিক এবং মা মিসেস মিলফোর্ড গৃহিনী। রবিনের কাজ হচ্ছে তিন গোয়েন্দার সকল কেসের রেকর্ড রাখা বা নথি সংরক্ষণ করা। পাহাড়ে চড়ায় সে ওস্তাদ; কয়েকবার পাও ভেঙেছে একারণে। বই পড়তে খুব ভালোবাসে আর বইয় থেকে দ্রুত উদ্ধৃতি দিতে পারে বলে সে “চলমান জ্ঞানকোষ” হিসেবে পরিচিত। তিন গোয়েন্দার সবার মধ্যে সবচেয়ে কেতাদুরস্ত আর দেখতেও সুন্দর। রবিন রকি বীচ লাইব্রেরীতে একটি খন্ডকালীন চাকরীও করে। কিছুদিন অবশ্য একটি ব্যান্ডের দলের সঙ্গেও কাজ করেছে। তাছাড়া রবিনও বিমান চালাতে পারে, তবে সে অতোটা দক্ষ নয।[৫] দলের অন্যান্য সদস্যের মতো সে কারাতে-তে বেশ দক্ষ। “থ্রি ইনভেস্টিগেটরস”-এ রবিন মিলফোর্ডের প্রতিসঙ্গী চরিত্র হলো রবার্ট বব এনড্রিউয (Robert Bob Andrews)

Additional Characters

Georgina Parker
Georgina Parker or Jina is the only daughter of famous scientist Mr. Harrison Jonathan Parker. She does not live in Rocky Beach, only comes for holidays. She has a soft spot for pets.she loves her dog very much. Her dog Ruffian often accompanies her in her adventures with Tin Goyenda. She sometimes disguises herself as a boy and uses the name George Gobel as an alias. Jina owns an island named ‘Gobel Island’ which she inherited from her mother. It is strongly believed that she is copied from Georgina George Kirrin, one of the primary characters of Enid Blyton’s Famous Five series. Jina is known to be a very stubborn girl and is suspected to have a small crush on Kishore.

জর্জিনা পারকার ও রাফিয়ান
জর্জিনা পারকার, সংক্ষেপে তাকে সবাই ডাকে ‘জিনা’ বলে। বিখ্যাত বিজ্ঞানী হ্যারিসন জোনাথন পারকারের একমাত্র মেয়ে জিনা। জিনা রকি বীচে থাকে না, শ্রেফ ছুটি কাটাতে এসে সে তিন গোয়েন্দার সাথে রহস্যোদঘাটনে জড়ায়। জিনা পোষা প্রাণীর প্রতি খুব মমতাশীল। ‘রাফিয়ান’ নামে তার একটি পোষা কুকুর আছে, যাকে আদর করে সংক্ষেপে ‘রাফি’ বলে ডাকা হয়- তিন গোয়েন্দার অনেকগুলো তদন্তে সাথে ছিলো রাফিয়ান। জিনা প্রায়ই নিজেকে ছেলেদের সমকক্ষ করে তুলতে ছেলেদের মতো করে ভাবে আর তখন নিজের নাম বলে ‘জর্জ গোবেল’। মায়ের থেকে জিনা ‘জর্জ গোবেল’ নামে একটি দ্বীপের মালিক।
ধারণা করা হয় যে, জিনা চরিত্রটি এনিড ব্লাইটনের (Enid Blyton) “ফ্যামাস ফাইভ” (Famous Five) সিরিজের ‘জর্জিনা জর্জ কিরিন’ (Georgina George Kirrin) চরিত্র থেকে ধার করা হয়েছে।

Other characters

David Christopher
David Christopher is one of the most famous film producers in Hollywood. He gave the Tin Goyenda their first break. Almost all of Tin Goyenda’s cases have been transformed into juvenile movies produced by Mr. Christopher. After the first case, Mr. Christopher often calls on Tin Goyenda to solve another puzzling mystery.

ডেভিস ক্রিস্টোফার
ডেভিস ক্রিস্টোফার হচ্ছেন সেই ব্যক্তি যাঁর কাছ থেকে তিন গোয়েন্দার গোয়েন্দাগিরির হাতেখড়ি। তিনি হলিউডের বিখ্যাত পরিচালক। প্রথম গল্পে তিন গোয়েন্দা তাকে একটি ভূতুড়ে বাড়ি খুঁজতে সহায়তা করে, সেই থেকে পরিচয়। পরবর্তীতে প্রায়ই নানারকম কেস তিন গোয়েন্দার হাতে গছিয়ে দিয়েছেন। করেছেন অনেক সাহায্যও। এছাড়া তিন গোয়েন্দার প্রায় প্রতিটি কেসের কাহিনী নিয়েই তিনি কিশোর-কিশোরীদের উপযোগী চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন।

Omar Sharif
Omar Sharif is an Egyptian adventure-loving pilot in his late twenties or early thirties. He was the favorite pilot of Davis Christopher. He was introduced in the books Jaladossur Dip 1, 2 (The Island of the Pirates, Part 1 and 2). Later he became Tin Goyenda’s favorite Omar Bhai. He took part in a number of adventures with Tin Goyenda. Later, Omar and Tin Goyenda founded a flying club private airliner in the name of ‘OKIMURO Corporation’ . O for Omar, Ki for Kishore, Mu for Musa and Ro for Robin.

ওমর শরীফ
ওমর শরীফ মিশরীয় বংশোদ্ভুত রোমাঞ্চপ্রিয় দক্ষ বৈমানিক। তিনি চিত্র পরিচালক ডেভিস ক্রিস্টোফারের পছন্দের পাইলট। গায়ে তাঁর বেদুইনের রক্ত, তাই সাহসের কমতি নেই। ওমরের সাথে তিন গোয়েন্দার বেশ কিছু অভিযান রয়েছে, যেমন: জলদস্যুর দ্বীপ ১ ও ২, গোপন ফর্মুলা, দক্ষিণের দ্বীপ, ওকিমুরো কর্পোরেশন ইত্যদি। ‘ওকিমুরো কর্পোরেশন’ হলো তিন গোয়েন্দা আর ওমর শরীফের সম্মিলিতভাবে খোলা একটি ফ্লাইং ক্লাব, যার ‘ও’ দ্বারা বোঝায় ওমর, ‘কি’ দ্বারা কিশোর, ‘মু’ দ্বারা মুসা আর ‘রো’ দ্বারা রবিনকে। ধীরে ধীরে ওমর, তিন গোয়েন্দার পছন্দের ‘ওমর ভাই’ হয়ে যান

Victor Simon
Victor Simon is a renowned private eye/author/adventurer. He is a very wealthy man keeping a special relationship with the boys. He keeps passing them cases time to time just like Mr. Christopher. Sometimes Mr. Simon and Tin Goyenda work together on the same case.

ভিক্টর সাইমন
ভিক্টর সাইমন হলেন একজন পেশাদার প্রাইভেট গোয়েন্দা। তিনি বিভিন্ন সময় নিজের কাছে আসা বিভিন্ন ছোটখাটো কেস ধরিয়ে দেন তিন গোয়েন্দাকে। আবার অনেক সময়ই তিনি নিজে তিন গোয়েন্দার সাথে একই কেসে কাজ করেন। এছাড়া বিভিন্ন রহস্যোদঘাটন শেষে তিন গোয়েন্দা তাঁর কাছে গিয়ে রিপোর্ট জমা দেয়। তিনি খুবই সম্পদশালী ব্যক্তি। ভিক্টর সাইমনের বাসায় একজন ভিয়েতনামী রাঁধুনী আছেন, নাম নিসান জাং কিম, যিনি প্রায়ই উদ্ভট উদ্ভট সব খাবার রান্না করে প্রথমবার মুসাকে দিয়ে চাখিয়ে দেখেন।

ক্যাপ্টেন ইয়ান ফ্লেচার
ক্যাপ্টেন ইয়ান ফ্লেচার হলেন রকি বীচ পুলিশ চীফ। তিনি অনেক সময়ই তিন গোয়েন্দাকে বিভিন্ন কেস দিয়ে থাকেন। তিনি নিজেই স্বীকার করেছেন যে, জটিল নকশার মর্ম উদ্ধার করার জন্য কিশোর পাশার মতো এমন যোগ্য লোক আর তাঁর জানামতে কেউ নেই

গোয়েন্দা শোঁপা
গোয়েন্দা শোঁপা হচ্ছে ইউরোপের একজন বিখ্যাত চিত্রকলা চোর। চমৎকার এই বুদ্ধিমান মানুষটির কিশোরের জন্য রয়েছে অন্যরকম এক শ্রদ্ধা। গোয়েন্দা শোঁপার সাথেও তিন গোয়েন্দার কয়েকটি অভিযান রয়েছে। যেমন: কাকাতুয়া রহস্য, ঘড়ির গোলমাল

Terrier Doyle (known as Shutki Terry)
‘Shutki’ (Bengali: শুঁটকি) refers to someone very thin, in a crude sense. Terry is the arch rival of Tin Goyenda. Tin Goyenda hates Shutki-Teri very much. Musa hates him the most! He has a team of his own.

টেরিয়ার ডয়েল
টেরিয়ার ডয়েল, তিন গোয়েন্দার কাছে শুঁটকি টেরি নামে যে একবাক্যে পরিচিত। টেরিয়ার সব সময়ই ঝামেলা পাকাতে ওস্তাদ। তারও নিজস্ব একটা বিচ্চু বাহিনী আছে, যারা প্রায়ই তিন গোয়েন্দার পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়ায়। মুসা টেরিকে দুচোখে দেখতে পারে না

Harrison Wagner Fogrampercott (known as Jhamela)
Jhamela (Bengali: ঝামেলা) refers to troubles. This police constable is one of the leading rival and a complete laugh of Tin Goyenda’s sequel series Tin Bondhu (The Three Mates). The rivalry began in a small village called ‘Greenhills’ where Robin, Musa and Fariha (Cousin of Musa) lived in their childhood and Kishore paid a visit time to time. He has a bad habit of telling the word ‘Jhamela’ (trouble). In the book ‘Ekhaneo Jhamela’ (Here’s Also Trouble) he was transferred to Gobel beach.

ফগরA্যাম্পারকট
হ্যারিসন ওয়াগনার ফগরA্যাম্পারকট একজন পুলিশ কনস্টেবল। তিন গোয়েন্দা তাকে একবাক্যে “ঝামেলা” বলে সম্বোধন করে থাকে, কেননা তিনি কথা কথায় নাক সিঁটকিয়ে ‘ঝামেলা’ শব্দটি উচ্চারণ করেন। সাধারণত এই চরিত্রটি প্রজাপতি প্রকাশন থেকে প্রকাশিত তিন গোয়েন্দার শোভন প্রকাশনা তিন বন্ধু সিরিজে দেখতে পাওয়া যায়। ছোটবেলায় যখন ‘গ্রিন হীলস’ নামক গ্রামে রবিন, মুসা আর মুসার চাচাতো বোন ফারিয়া থাকতো, কিশোর মাঝে মাঝে সেখানে ছুটি কাটাতে যেতো, তখনকার ঘটনাগুলো সাধারণত তিন বন্ধু সিরিজের মুখ্য বিষয়। তিন বন্ধুর এখানেও ঝামেলা বইতে দেখা যায় ফগরA্যাম্পারকটকে বদলি করে দেয়া হয়েছে গোবেল বীচে

William Bobrampercott
William Bobrampercott is the nephew police constable Harrison Wagner Fogrampercott. He was mainly mentioned in the series Tin Bondhu. Despite his uncle’s rivalry with the young detectives, he was in a great bond with the boys. He also took direct part in some cases of Tin Bondhu.

ববরA্যাম্পারকট
উইলিয়াম ববরA্যাম্পারকট, তিন বন্ধু সংক্ষেপে যাকে বব বলে ডাকে, ফগরA্যাম্পারকটের ভাতিজা। তিন গোয়েন্দার ভালো বন্ধু; বিভিন্ন কেসে সরাসরি সহায়তা করেছে সে, যদিও চাচা সব সময়ই বিরোধিতা করেছেন এসবের। সাধারণত ‘তিন বন্ধু’ সিরিজে তাকে দেখতে পাওয়া যায়

Hanson (Known As the Chauffeur of Rolls Royce)
Hanson is a British chauffeur who drives the Tin Goyenda around in a Rolls Royce. As time passes, he also becomes a confident and helper in the boys’ investigations

শোফার হ্যানসন
হ্যানসন হচ্ছে “রোলস রয়েস”-এর ব্রিটিশ শোফার। মধ্যপ্রাচ্যের এক শেখের জন্য প্রস্তুত করা হয় এই রোলস রয়েস। কিন্তু তিনি নিতে আপত্তি জানানোয় এর প্রতিষ্ঠান “রেন্ট-এ-কার অটোরেন্টাল কোম্পানী” গাড়িটিকে বিজ্ঞাপনের কাজে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেয় এবং একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। সেই প্রতিযোগিতায় বুদ্ধিদীপ্ত জবাব দিয়ে গাড়িটি ৩০দিনের জন্য ব্যবহারের সুযোগ পায় কিশোর পাশা, সেই সুবাদে তিন গোয়েন্দা। সেই গাড়ির চালক হ্যানসন। ৩০ দিনের সুযোগ শেষ হয়ে গেলে অত্যন্ত মূল্যবান “রক্তচক্ষু” পাথর খুঁজে দেবার পর এর মালিক অগাস্ট অগাস্ট তাঁর নামে তিন গোয়েন্দাকে রোলস রয়েস ব্যবহারের অনুমতি এনে দেন। এভাবেই হ্যানসনের সাথে মিত্রতা আরো গভীর হয় তিন গোয়েন্দার। পুরোন প্রায় সব বইগুলোতেই তাঁকে দেখা যায়; অনেক সময় অনেক কেসে সহায়তাও করে থাকেন তিন গোয়েন্দাকে

Important places and other things
তিন গোয়েন্দার হেডকোয়ার্টার ও উপকরণাদি

The headquarter
The headquarter of Tin Goyenda is in Pasha Salvage Yard. It is nothing but a mobile van which Mr. Rashed Pasha bought a long time ago and then forgot about its existence. Tin Goyenda took this chance and made it their headquarter. It is hidden under junk and has several entrances. All the entrances are well hidden and have their own names. Sobuj Fotok Ek (Green Gate One), Dui Surongo (Tunnel Two), Sohoj Tin (Easy Three), “lal Kukur Char” (Red Dog Four) are some examples.
Despite its small size, the headquarter accommodates the needs of Tin Goyenda. Apart from sitting space for them, it also contains a darkroom for photo processing, a storage portion for keeping the track of their cases, a periscope, a telephone, etc.

হেডকোয়ার্টার
তিন গোয়েন্দার হেডকোয়ার্টার বা প্রধানকেন্দ্র বলতে বোঝায় একটি মোবাইল ভ্যান, যা ফেলনা অবস্থায় রাশেদ পাশা দীর্ঘদিন আগে কিনে এনেছিলেন। পাশা স্যালভিজ ইয়ার্ডে লোহা-লক্কড়ের স্তুপের নিচে পড়ে যাওয়ায় বেমালুম ভুলেই গেছেন কিশোরের চাচা। আর সেই সুযোগে তিন গোয়েন্দা সেই মোবাইল হোমের ভিতর তৈরি করে নিয়েছে নিজেদের হেডকোয়ার্টার। হেডকোয়ার্টারের স্থান খুব ছোট হলেও এতে রয়েছে ডার্করুম, যেখানে তিন গোয়েন্দা ছবি ওয়াশ করে থাকে; আছে নিজেদের বসার জন্য আলাদা জায়গা; টেলিফোন ও তাতে সংযোগ দেয়া লাল বাতি, যাতে হেডকোয়ার্টারের বাইরে থাকলে ঐ বাতির জ্বলা-নিভা দেখে তারা বুঝে নিতে পারে হেডকোয়ার্টারে টেলিফোন বাজছে; আছে প্যারিস্কোপ, তিন গোয়েন্দা যার নাম দিয়েছে “সর্বদর্শন”; এছাড়া আছে নিজেদের তদন্ত করা কেস-রিপোর্টগুলো সংরক্ষণের জায়গা। এই গোপন হেডকোয়ার্টারে ঢোকার জন্য তারা তৈরি করে নিয়েছে আলাদা আলাদা গোপন পথ: “সবুজ ফটক এক”, “দুই সড়ঙ্গ”, “সহজ তিন”, “লাল কুকুর চার” হলো সেসব গোপন পথেরই গুপ্ত নাম

The Rolls-Royce
In the first book, Tin Goyenda, or more specifically Kishore Pasha, won the use of a Rolls-Royce for 30 days by winning a quiz competition. According to the company, Rent-a-car Auto Rental Company, this luxury car was made for a Sheikh in a Middle Eastern country. But when manufacturing was finished the Sheikh had rejected it. From then on, the company had used it as a publicity tool. The Rolls-Royce is a large black and golden luxury vehicle with a telephone and other comforts. Tin Goyenda uses it in the first few books. When the 30 day period was over, they were no longer entitled to use it. But after finding the precious stone Roktochokkhu (The Red Eye), its grateful owner August August to Tin Goyenda only ‘Gus’ asked the company to let Tin Goyenda use the Rolls-Royce on his account. Tin Goyenda has used the vehicle from then on when they needed it. Usually Mr. Hanson, a British-American, drives the car for the company.

Brief history

Tin Goyenda appeared at a time when the Bangladeshi Bengali language book market offered very few juvenile detective novels. Apart from the ‘Feluda’ series by Satyajit Ray, no contemporary detective series for children were available. In August 1985, the first Tin Goyenda book also named Tin Goyenda hit the market and caught the attention of thousands of thriller-loving young people.
The huge success of the first book paved the way of the next one Konkal Dip (The Skeleton Island). The third installment (Rupali Makorsha-The Silver Spider) maintained the high level of thrill and suspense of the previous books. After receiving tremendous responses from the teenage readers of the series, next books did not take much time to reach the eager hands of the readers. As time went by, publishing of the next book becomes more frequent and later a new book was being published in every month.
Most of the books were adaptations, with stories adapted from various other books, mostly from western writers. This lack of originality has been criticized as a weakness of the series.
After writing for more than a decade, Rakib Hassan departed from Sheba Prokashoni and Shamsuddin Nawab took the duty to continue.

Trademark

When the first met Davis Christopher they showed him a card. Like This:


Everyone, at first, questions about the 3 question mark (???). Then they answered the question and talk some extra time by it. Actually it is a trick of Kishore Pasha. He thought that anyone who will see their card will ask questions and by the questions they can talk more time with the man/woman. This trick of Kishore Pasha worked perfectly!
Its also a trademark of them. When they got into any trouble, left a sign of question mark. Then others find him by it. Many times it saved their life!

কার্ড
পাশা স্যালভিজ ইয়ার্ডেই তিন গোয়েন্দা একটি পুরোন ছাপার-যন্ত্রকে সারিয়ে নিয়ে নিজেদের কার্ড ছাপিয়ে নেয়। কার্ডের উপরে শিরোনাম আকারে বড় করে লেখা থাকে “তিন গোয়েন্দা” কথাটি; তার ঠিক নিচেই থাকে তিনটি প্রশ্নবোধক চিহ্ন (?); তার নিচে প্রথম সারিতে “গোয়েন্দা প্রধান:কিশোর পাশা”, দ্বিতীয় সারিতে “গোয়েন্দা সহকারী:মুসা আমান”, তৃতীয় সারিতে “নথি গবেষক: রবিন মিলফোর্ড” লেখা। কার্ডের গায়ে তিনটি প্রশ্নবোধক চিহ্ন দেয়ার বুদ্ধিটা কিশোরের। এই তিনটি প্রশ্নবোধক চিহ্ন একই সাথে তিনজন গোয়েন্দাকে প্রতীকায়িত করবে, আর রহস্যময়তা ও জিজ্ঞাসা ফুটিয়ে তুলবে। এছাড়া এই চিহ্ন (?) তাদের নিজেদের ট্রেডমার্ক হিসেবেও কাজ করে, কেননা যখনই তারা কোথাও বিপদে পড়ে যায়, তখনই এই চিহ্ন এঁকে নিজেদের উপস্থিতি বা অবস্থান জানান দিয়ে থাকে অন্যদের। এভাবে অনেকবারই তারা বিভিন্ন বিপদ থেকে রক্ষা পেয়েছে।
অবশ্য পরবর্তিতে তিন গোয়েন্দা তাদের কার্ডে প্রশ্নবোধক চিহ্নের স্থলে আশ্চর্যবোধক চিহ্ন (!) বসিয়ে নেয়। কিশোরের অভিমত, এই চিহ্ন দ্বারা নাকি আরো বেশি রহস্যময়তা ফুটিয়ে তোলা যায়। কার্ডের গায়ে এরকম চিহ্ন দেয়ার ক্ষেত্রে কিশোরের অভিমত হলো, এভাবে নাকি কারো দৃষ্টি আকর্ষণ করা যায় এবং অপরিচিত ব্যক্তি কাছে চিহ্নগুলোর অর্থ বোঝানোর ছলে কিছুক্ষণ অতিরিক্ত সময় বের করে কথা বলা যায়, এতে তদন্তে অনেক সুবিধা হয়।

সমালোচনা

তিন গোয়েন্দা বিভিন্ন সময় সমালোচিত হয়েছে নানা কারণে। প্রথমত তিন গোয়েন্দা মৌলিক কাহিনী না হওয়ার কারণে সমালোচিত হয়। কিন্তু বিপুল চাহিদার ভিড়ে সেই সমালোচনা তেমন একটা সুবিধা করে উঠতে পারেনি। এছাড়া মাসুদ রানা সিরিজের প্রাথমিক বদনামের প্রেক্ষিতে ‘প্রজাপতি’ মার্কাওয়ালা বই অনেক পরিবারে নিষিদ্ধ হয়ে যায় বলে তিন গোয়েন্দাও অনেক অভিভাবকের নজরে নেতিবাচক হয়ে ওঠে। এছাড়া তিন গোয়েন্দা পড়ে এডভেঞ্চারের নেশায় কিছু অত্যুৎসাহী কিশোর বাবা-মা-কে না জানিয়ে বাসা থেকে বেরিয়ে পড়ায়ও তিন গোয়েন্দার প্রভাবকে সুনজরে দেখা হয়নি

Series of তিন গোয়েন্দা(Tin Goyenda)

Tin Goyenda (The Three Detectives); Konkal Dip (The Skeleton Island); Rupali Makorsha (The Silver Spider); Chayashwapod (The Invisible Dog); Momee (Mummy); Rotnodano(The Stone Monster); Pretshadhona (Worship of Spirits); Roktochokkhu (Bloodeye); Sagor Saikot (Sea Beach); Jolo Doshyur Dip 1,2 (The Pirates’ Island 1,2); Sobuj Bhut (Green Ghost); Harano Timi (The Lost Whale); Mukto Shikary (Pearl Hunter); Mrittu Khoni (Death Mine); Kakatua Rohossho (Parrot Mystery); Chhuti (Vacation); Bhuter Hashi (Laugh of the Ghosts); Chhintai (Kidnapping); Vishon Arunno 1 & 2 (Dangerous Jungle 1,2); Dragon; Harano Upottaka (The Lost Valley); Guhamanob (The Cave Man); Veetu Shingho (The Scared Lion); Mohakasher Aguntok (Strangers from the Space); Indrojaal (Enigma); Mohabipod (Grave Danger); Khepa Shaitan (The Angry Demon); Rotnochor (The Stone Thief); Purono Shotru (Old Enemy); Bombete (The Pirate); Bhuturey Shurongo (The Haunted tunnel); Abar Shommelon (Again a Conference); Bhoyal Giri (The Scary Hill); Kalo Jahaj (The Black Ship); Poacher (The Poachers); Ghorir Golmaal (Clock Malfunctions); Kana Beral (The One-Eyed Cat); Baxota Proyojon (Need the Box); Khora Goyenda (The lame Detective); Othoi Sagor 1 & 2 (Endless Sea 1,2); Buddhir Jhilik (Sparkle of Wit); Golapi Mukto (Pink Pearl); Projapotir Khamar (Butterfly Farm); Pagol Shongho (Club of Mads); Bhanga Ghora (Broken Horse); Dhakay Tin Goyenda (Three Detectives in Dhaka); Jolkonna (The Mermaid); Beguni Jolodosshu (The Purple Pirate); Payer Chhap (Foot Prints); Tepantor (Far Away); Shingher Gorjon (Lions Roar); Purono Bhoot (The Old Ghost); Jaduchokro (Magic Society); Garir Jadukor (Wizard of Cars); Prachin Murtee (Ancient Statue); Jhorer Dip (Storm’s Island); Dokshiner Dip(Island of South); Ishshorer Osru(God’s Tear); Nokol Kishor(Duplicate Kishor); Tin Pisach (Three Devils); Khabare Bish (Poison in Food); Warning Bell (Warning Bell); Biman Durghotona (Plane Accident); Racer Ghora (Horse of Race); Gorostane Atonko (Fear at Graveyard); Khun! (Murder); Spaner Jadukor (Magician of Spane); Banorer Mukhosh (Mask of Monkey); Kalo Haat (Black Hand); Ovinoy (Acting); Aalor Shonket (Sing of Light); Purono Kaman (Old Tank); Gelo Kothay (Where is It Gone); Okimuro Corporation (Okimuro Corporation); Operation Cox’s Bazar (Operation Cox’s Bazar); Jinar Shei Dip (That Island of Jina); Kukur Kheko Daini (Dog eater Wich); Jhamela (Problem); Bishakto Orchid (Poisonous Orchid)….
PLEASE IN FROM ME FROM THE LIST WHICH BOOK DO U NEED?I WILL POST IT IN HERE.Thank you

মুলত বইটি অনুবাদ করা হয় Robert Arther এর লেখা হতে যেমন তার বই এ লেখা এরকম

BOB ANDREWS PARKED his bike outside his home in
Rocky Beach and entered the house. As he closed the
door, his mother called to him from the kitchen.
�Robert? Is that you?�
�Yes, Mom.� He went into the kitchen. His mother,
brown-haired and slender, was making doughnuts.
�How was the library?� she asked.
�It was okay,� Bob told her. After all, there was
never, any excitement at the library. He worked there
part time, sorting returned books and helping with the
filing and cataloguing.
�Your friend Jupiter called.� His mother went on
rolling out the dough on a board. �He left a message.�
�A message?� Bob yelled with sudden excitement.
�What was it?�
�I wrote it down. I�ll get it out of my pocket as soon
as I finish with this dough.�
�Can�t you remember what he said?�
�I could remember an ordinary message,� his
mother answered, �but Jupiter doesn�t leave ordinary
messages. It was something fantastic.�
�Jupiter likes unusual words,� Bob said. controlling
his impatience. �He�s read an awful lot of books and
sometimes he�s a little hard to understand.�
�Not just sometimes!� his mother retorted. �He�s a
very unusual boy. My goodness, how he found my
engagement ring, I�ll never know.�
She was referring to the time the previous autumn
when she had lost her diamond ring. Jupiter Jones
had come to the house and requested her to tell him
every move she had made the day the ring was lost.
Then he had gone out to the pantry, and found the
ring behind a row of bottled tomato pickles. Bob�s
mother had taken it off and put it there while she was
sterilising the jars.
�I can�t imagine,� Mrs. Andrews said, �how he
guessed where that ring was!!�
�He didn�t guess, he figured it out,� Bob explained.
�That�s how his mind works . . . Mom, can�t you get
the message now?�
�In one minute,� his mother said, giving the dough
another flattening roll.
�Incidentally, what on earth was that story on the
front of yesterday�s paper about Jupiter�s winning the
use of a Rolls-Royce sedan for thirty days?�
�It was a contest the Rent-�n-Ride Auto Rental
Company had,� Bob told her. �They put a big jar full
of beans in their window and offered the Rolls-Royce
and a chauffeur for thirty days to whoever guessed
nearest to the right number of beans. Jupiter spent
about three days calculating how much space was in
the jar, and how many beans it would take to fill that
space. And he won . . . Mom, please, can�t you find
the message now?�
�All right,� his mother agreed. She began to wipe
the flour from her hands. �But what will Jupiter Jones……

রবার্ট আর্থার এর যে সকল বই থেকে তিন গোয়েন্দা অনুবাদ করা হয়েছে:

The Secret of Terror Castle (by Robert Arthur 1964)(Teen Goyenda)
The Mystery of the Stuttering Parrot (by Robert Arthur 1964)(Kakatua Rohoshsho)
The Mystery of the Whispering Mummy (by Robert Arthur 1965)( Momy)
The Mystery of the Green Ghost (by Robert Arthur 1965)( Sobuj Voot)
The Secret of Skeleton Island (by Robert Arthur, 1966)( Konkal Deep)
The Mystery of the Fiery Eye (by Robert Arthur, 1967)( Rokto Chokkhu)
The Mystery of the Silver Spider (by Robert Arthur 1967)(Rupali makorsha)
The Mystery of the Screaming Clock (by Robert Arthur 1968)(Ghorir golmaal)
The Mystery of the Moaning Cave (1968, by William Arden)(Vootoore surongo)
The Mystery of the Talking Skull (by Robert Arthur 1969)(Indrojaal)
The Mystery of the Laughing Shadow (1969, by William Arden)(Vooter hashi)
The Secret of the Crooked Cat (1970, by William Arden)(Kaana Beraal)
The Mystery of the Coughing Dragon (1970, by Nick West)(Dragon)
The Mystery of the Flaming Footprints (1971, by M. V. Carey)(payer chaap)
The Mystery of the Nervous Lion (1971, by Nick West)(Veetu Singho)
The Mystery of the Shrinking House (1972, by William Arden)
The Secret of Phantom Lake (1973, by William Arden)
The Mystery of Monster Mountain (1973, by M. V. Carey)(
The Secret of the Haunted Mirror (1974, by M. V. Carey)
The Mystery of the Dead Man’s Riddle (1974, by William Arden)
The Mystery of the Invisible Dog (1975, by M. V. Carey)(chaya shapod)
The Mystery of Death Trap Mine (1976, by M. V. Carey)(harano Upottoka)
The Mystery of the Dancing Devil (1976, by William Arden)(Khepa Shoitaan)
The Mystery of the Headless Horse (1977, by William Arden)(vanga ghora)
The Mystery of the Magic Circle (1978, by M. V. Carey)(Jadu-chokro)
The Mystery of the Deadly Double (1978, by William Arden)
The Mystery of the Sinister Scarecrow (1979, by M. V. Carey)(Nishachor)
The Secret of Shark Reef (1979, by William Arden)
The Mystery of the Scar-Faced Beggar (1981, by M. V. Carey)
The Mystery of the Blazing Cliffs (1981, by M. V. Carey)(Mohakasher agontuk)
The Mystery of the Purple Pirate (1982, by William Arden)(Beguni jolodossu)
The Mystery of the Wandering Cave Man (1982, by M. V. Carey)(Guhamanob)
The Mystery of the Kidnapped Whale (1983, by Marc Brandel)(Harano timi)
The Mystery of the Missing Mermaid (1983, by M. V. Carey)
The Mystery of the Two-Toed Pigeon (1984, by Marc Brandel)(Mukto shikari)
The Mystery of the Smashing Glass (1984, by William Arden)
The Mystery of the Trail of Terror (1984, by M. V. Carey)
The Mystery of the Rogues’ Reunion (1985, by Marc Brandel)
The Mystery of the Creep-Show Crooks (1985, by M. V. Carey)
The Mystery of Wrecker’s Rock (1986, by William Arden)
The Mystery of the Cranky Collector (1987, by M. V. Carey)
The Mystery of the Ghost Train (unpublished/unfinished, by M. V. Carey)

তবে সেবা প্রকাশনীর প্রতিটা বইয়ে “বিদেশী কাহিনী অবলম্বনে” লেখা থাকত। ফলে সেবা প্রকাশনী কোন দোষ করে নাই। বরং অন্যদের মত কাহিনী চালানোর চেষ্টা করে নি!! তাছাড়া তারা প্রতিটা বইয়ের দাম কম করে ধরে!! ফলে তাদেরকে ধন্যবাদ রক্তপিপাসু এর মত টাকা আয় না করে আমাদের বই পড়ার সুযোগ করে দিয়েছে। তাছাড়া রকিব হাসান সংক্ষেপে রকিব দা অনুবাদ করে কাহিনী ঠিক রেখেছেন। অনুবাদ করে কাহিনী ঠিক রাখা একটি কঠিন কাজ। তাও আবার তা ভাল করে করতে হয়েছে তাকে। THANXX RAKIB HASAN

(আমি এখন তিন গোয়েন্দার ফাইলগুলোকে আপলোড করছি। খুব শীঘ্রই তিন গোয়েন্দাকে সব সমগ্র পাবেন )

==================================================
২৯টা তিন গোয়েন্দার বই দেওয়া হলো আরো soon add করা হবে।বই গুলি ONLINE এ পরতে পারেন আবার সাইট থেকে DOWNLOAD kortey paren

==================================================

তিন গোয়েন্দা
ভীষণ অরণ্য ১
ভীষণ অরণ্য ২
কাকাতুয়া রহস্য
ডাকাতের পিছে
বিপদজনক খেলা
দক্ষিণ যাত্রা
গ্রেট মুসাইয়াসো
খেলনা ভাল্লুক
লুকানো সোনা
নিষিদ্ধ এলাকা
তাষের খেলা
ভ্যাম্পারের দীপ
ছুটি
ছিন্তাই
চোর এর আস্তানা
মায়াজাল>সৈকতে সাবধান
পাথরে বন্দি>গোয়েন্দা রোবোট>কালো পিচাশ
জীনার সেই দীপ> কুকুর খেয়ো ডাইনী> গুপ্তচর স্বীকারী
এখানেও ঝামেলা>দুর্গম কারাগার>ডাকাত সর্দার
কবোরের প্রহরি
ভলিউম ৬৬


এ সম্পর্কিত আরো কিছু টুইট:

বর্তমান কালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং এর প্রায়২১০০টাকা মূল্যের বই A_Brief_History_Of_Time...
ফ্রী ডাউনলোড করে নিন ব্লগিং শেখার বাংলা বই (ছবি সহ)
রমন হিল ষ্টেশনে-বাংলা কমিক্স ফ্রী ডাউনলোড
মাইক্রোসফট আফিস(MicroSoft Office) /এমএস ওয়ার্ড,এক্সেল ,অ্যাক্সেস ও টাইপিং এর উপর কিছু ইম্পরট্যান্ট ব...
এক্সপি সেটআপ দেবার গাইড বই
ডাউনলোড করুন রোজার উপর একটি অশাধারন বই
বাংলা বই ফ্রী ডাউনলোড করার সেরা ১০ টি ওয়েবসাইট

মন্তব্য দিনঃ

comments

About the author

shahnur025

shahnur025

Permanent link to this article: http://techtweets.com.bd/books/shahnur025/19942

2 comments

  1. MOBIN KHAN
    MOBIN KHAN

    I love this post. very very very very very very very thankkkkkkkkkkkkkkkkkkk.

  2. kishor001

    আপনার কাছে অথই সাগর আছে ……. থাকলে প্লিজ দেন…… আমার ইমেইল kishor.durjoy1@yahoo.com

মন্তব্য করুন